রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

হাওয়াইয়ান গিটারে সুরের মূর্ছনা ও গুণিজন সংবর্ধনা

প্রকাশিত: ৯ নভেম্বর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জ হাওয়াইয়ান গিটার পরিষদের গিটারবাদন সন্ধ্যার শুরুতে ভেসে আসে ‘আমার সোনার বাংলা’ জাতীয় সংগীতের সুর। মঞ্চে হাওয়াইয়ান গিটারে এ সুর তুলেছেন শিল্পী অসিত কুমার।


শুক্রবার (৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় নগরের আলী আহাম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনের ৫ম তলার এক্সপেরিমেন্টাল হলে সংগঠনের ‘অনুরণন’ শীর্ষক হাওয়াইয়ান গিটার বাদন ও গুণিজন সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।


ওয়াস্তা আহম্মেদ মেধার সঞ্চালনায় হাওয়াইয়ান গিটারে জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে শুরু হওয়া এ আয়োজনে স্বাগত বক্তব্য দেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অঙ্কন রানা।


কথামালা শেষে মঞ্চে আবার বেজে ওঠে হাওয়াইয়ান গিটারের সুর। পুরোনো দিনের গানের সুরমূর্ছনার আবেশ ছড়িয়ে পড়ে মিলনায়তন জুড়ে। এভাবে চলতে থাকে কথামালা আর হাওয়াইয়ান গিটারে সুরের মূর্ছনা।


সংগঠনের সভাপতি রহমতউল্লাহ ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে চাঁদপুরের বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও ইলিশ উৎসবের রূপকার হারুন আল রশিদকে গুণিজন সংবার্ধনা প্রদান করা হয়। এ সময় আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ শিশু একাডেমির পরিচালক আনজির লিটন।


অতিথিদের ফুলের শুভেচ্ছা জানানোর পর সংবর্ধিত ব্যক্তিত্ব হারুন আল রশিদের হাতে তুলে দেওয়া হয় স্মারক। এ সময় অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে তিনি বলেন, আজকে এমন একটি অনুষ্ঠানে আসতে পেরে আমি আনন্দিত ও অভিভূত। নারায়ণগঞ্জের মানুষ আমাকে যে সম্মান জানালো এ জন্য আমি আমৃত্যু তাদের কাছে কৃতজ্ঞ থাকব।


চাঁদপুরের প্রতিবছর অনুষ্ঠিত ইলিশ উৎসবের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা যে আন্দোলনটা করে যাচ্ছি তা সমগ্র বাংলাদেশে ছড়িয়ে পড়ুক। জনগণ একটু সচেতন হলে আমাদের এ আন্দোলন সফল হবে। জনগণ যদি নিষেধাজ্ঞার সময় বাজার থেকে ইলিশ ক্রয় না করে তাহলে জেলেরাও ইলিশ ধরা বন্ধ করে দেবে। আমাদের এ পদক্ষেপটি যেন সরকার একটি রাষ্ট্রীয় পদক্ষেপ হিসেবে গ্রহণ করে। এটিকে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন হোক বা স্বীকৃতি দেওয়া হোক।


বাংলাদেশ শিশু একাডেমির পরিচালক আনজির লিটন বলেন, সমাজের অস্থিরতা দূর করা জন্য আমাদের অবশ্যই সংস্কৃতি চর্চায় উদ্বুদ্ধ হওয়া উচিত। আজকে যে অনুষ্ঠান দেখলাম, পরিশেনা দেখলাম তাতে আমি অত্যন্ত বিমোহিত।


নারায়ণগঞ্জ হাওয়াইয়ান গিটার পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অঙ্কন রানার একটি অনুরোধের প্রেক্ষিতে তিনি বলেন, সত্যিই হাওয়াইয়ান গিটার দিয়ে অনেক সুন্দর করে গান ফুটিয়ে তোলা যায়। তাই ভবিষৎ প্রজন্ম যাতে এর সাথে পরিচিত হতে পারে, তাই এর চর্চায় উদ্ধুদ্ধ করার জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করব। শিশুরা যাতে আগামী বছরের জানুয়ারি মাস থেকে নারায়ণগঞ্জ শিশু একাডেমি থেকে গিটার বাদনের প্রশিক্ষণ নিতে পারে এজন্য বাংলাদেশ শিশু একাডেমির মাধ্যমে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

 

অনুষ্ঠানে হাওয়াইয়ান গিটারের সুরের মূর্ছনার ফাঁকে ফাঁকে কথামালায় অংশগ্রহণ করেন-খেলাঘর নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি রথীন চক্রবর্তী, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ভবানী শংকর রায়, সমমনা’র সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন আহম্মেদ, চাঁদপুর সাংস্কৃতিক চর্চা বিকাশ কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক কিরণ হাসান প্রমুখ।


হাওয়াইয়ান গিটারে সুর তুলেছেন-অসিত কুমার, আবদুর রউফ, শরীফুর রহমান জুয়েল, ফরহাদ আজীম, মনির হোসেন কাজল, আদিত্য চক্রবর্তী এবং অঙ্কন রানা।


অনুষ্ঠানে নারায়ণগঞ্জ কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ফজলুল হক রুমন রেজা, সমমনার সভাপতি দুলাল সাহা, নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক শাহীন মাহমুদ, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনি সুপান্থ, যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল আলম নান্টু, সংগীত পরিচালক আমজাত হোসেন, নারায়ণগঞ্জ বন্ধুসভার সাবেক সভাপতি রাসেল আদিত্য, সাব্বির আল ফাহাত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর