বুধবার   ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৭ ১৪২৬   ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সিদ্ধিরগঞ্জে চালু হচ্ছে দেশের প্রথম স্কিলএনরিচমেন্ট বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত: ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : সিদ্ধিরগঞ্জে মার্চে চালু হচ্ছে দেশের প্রথম স্কিল এনরিচমেন্ট বিশ্ববিদ্যালয় ‘ইউনিভার্সিটি অব স্কিল এনরিচমেন্ট অ্যান্ড টেকনোলজি (ইউসেট)’। সাইনবোর্ড এলাকায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পাশে সামাদবানু টাওয়ারের অস্থায়ী ক্যাম্পাসে ১ মার্চ থেকে পাঠদান শুরু হলেও শিক্ষার্থী ভর্তি নেওয়া শুরু করবে চলতি সপ্তাহে। স্থায়ী ক্যাম্পাস হবে কুমিল্লার মেঘনা এলাকায়।

 

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের শহীদ হানিফ খান মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান বিশ্ববিদ্যালয়টির  ট্রাস্টি বোর্ডের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও অস্ট্রেলিয়ার গ্রিফিথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সদ্য অবসরপ্রাপ্ত  প্রফেসর ড. মোয়াজ্জেম হোসেন। 

 

সংবাদ সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রাস্টি বোর্ডের প্রধান উপদেষ্টা ও অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ এবং উপাচার্য ড. তানভীর খান (ডেজিগনেট) সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন।  

 

ড.কাজী খলীকুজ্জামান আহমদ বলেন, সরকারের ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নের অংশ হিসাবে দেশের প্রতিটি জেলায় সরকার প্রধান একটি করে বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনের কথা ঘোষণা করেছেন। ইউসেট প্রতিষ্ঠার মূল উদ্দেশ্যও দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে সমৃদ্ধ দেশ গঠনে অংশ নেওয়া। 

 

‘এখান থেকে স্নাতক, স্নাতকোত্তর ও ডিপ্লোমা ডিগ্রি সম্পন্ন করা শিক্ষার্থীরা দেশের দক্ষ মানব সম্পদের চাহিদা পূরণ করবে। একই সাথে ইউরোপ ও আমেরিকার মত উন্নত দেশে তাদের দক্ষতা ও যোগ্যতা দিয়ে আমাদের কাজের বাজার বৃদ্ধি করতে পারবেন।’  

 

ড.মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন,  চতুর্থ শিল্প বিপ্লব সফল করতে হলে শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান ও  শিল্পের সাথে সমন্বয় করতে হবে। নইলে এ বিপ্লবের সুফল মিলবে না। তাই আমরা এর সুফল অর্জনের সহযোগি হতে দেশের প্রথম স্কিল এনচিরমেন্ট অ্যান্ড টেকনোলজি বিশ^বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। 

 

‘আমরা গতানুগতিক শিক্ষা-কার্যক্রমের বাইরে ব্যবহারিক ও কর্মমুখী কোর্স ডিজাইনে গুরুত্ব দিয়েছি। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রায়োগিক দিকটির গুরুত্ব অনুধাবন করে রাখা হয়েছে ইন্ডাস্ট্রিয়াল এটাচমেন্ট।’  

 

বিশ^বিদ্যালয়ে দক্ষতা-ভিত্তিক ইন্সটিটিউট করার অনুমোদন পেয়েছে জানিয়ে ড.মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘নির্দিষ্ট দক্ষতার ওপর আমরা কিছু ডিপ্লোমা কোর্স ডিজাইন করছি; শিগগিরই আমরা কোর্সগুলো চালু করবো। এর মাধ্যমে বিদেশে, বিশেষত পশ্চিমের দেশগুলোতে দক্ষ কর্মী রপ্তানি সহজ হবে।’ 

 

ড.তানভীর খান জানান, ‘ইউসেট গত ২৮ আগস্ট সরকারি অনুমোদন লাভ করে। গত ৫ ফেব্রুয়ারি ৪টি বিভাগে- কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএসই), ইংরেজি সাহিত্য, ব্যাচেলর অব বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (বিবিএ) ও অর্থনীতি বিভাগে শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য বিশ^বিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের অনুমতি পেয়েছি। ইলেট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং এবং টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।’ 
 

এই বিভাগের আরো খবর