বুধবার   ২৬ জুন ২০১৯   আষাঢ় ১১ ১৪২৬   ২২ শাওয়াল ১৪৪০

সালামিটা এখন আমাকেই দিতে হয় : আফজাল হোসেন পন্টি

প্রকাশিত: ৩ জুন ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : ঈদ মানে আনন্দ। ঈদ মানে খুশি। ঈদে ছোটবেলার আনন্দটাই সবচেয়ে বেশি মনে পড়ে। ঈদে সবচেয়ে বেশি আকর্ষণ ছিলো নতুন জুতা আর জামায়। তবে নতুন জুতার প্রতি আমার বেশ আগ্রহ ছিলো। মনে হত কখন সকাল হবে, নতুন জুতা পড়বো কখন বের হবো। আরো নানা চিন্তা। ছোটবেলার ঈদ উদযাপনের স্মৃতিচারণ করছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক  আফজাল হোসেন পন্টি।

 

এবারের ঈদে পরিকল্পনা সম্পর্কে আফজাল হোসেন পন্টি জানান, পরিকল্পনা বলতে তেমন কিছু নেই। ঈদের দিনে নামাজ পড়বো। তারপর পরিবারের সাথে দিনটি উদযাপন করবো। সময় পেলে ঈদের পরে পরিবার নিয়ে নারায়ণগঞ্জের বাইরে বেড়াতে যাবো। 

 

ঈদ কেনাকাটার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসলে এখন কেনাকাটা বলতে ওই পাঞ্জাবি আর জুতোর মধ্যেই সীমাবদ্ধ। এখন কেনাকাটা  হয় তবে নিজের জন্য নয় পরিবারের জন্য। বড় হওয়ার সাথে সাথে দায়িত্বের জায়গাটাতেও পরিব্যাপ্তি ঘটেছে। তবে এখন একটা জিনিস এখন লক্ষ্য করি যে এখনকার ছেলে মেয়েরা একাধিক পোশাক পেয়েও আনন্দিত হয় না। অথচ ছোটবেলায় আমরা একটা নতুন জামা পাওয়ার যে আনন্দ তা অপ্রতুল ছিলো।

 

ছোটবেলার ঈদের স্মৃতিচারণ করতে করতে আফজাল হোসেন পন্টি বলেন, এখন আর সেই আনন্দ পাই না। ছোটবেলার ঈদ নিয়ে যত আগ্রহ যত আনন্দ ছিলো তা এখন নিজের মেয়েদের মধ্যে ট্রান্সফার করে দিয়েছি। এখন ওদের ঈদ আনন্দই আমার আনন্দ।
 

ঈদ সালামি মজার স্মৃতিচারণ করে তিনি বলেন, ছোটবেলায় সালামি বিষয়টা ঈদেও মুখ্য বিষয় ছিলো। কখন বন্ধুদেও সাথে প্রতিযোগীতা থাকতো কে কত বেশি সালামি পেলাম। এমনও অনেক ঘটনা রয়েছে যে শুধুমাত্র সালামি বেশি পাওয়ার আশায় বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজনদের বাসায় বেড়াতে যেতাম। তবে এখন আর পাওয়া হয় না। এ বিষয়টা এখন খুব মিস করি। এখন আর কেউ সালামি দেয় না বরং আমাকেই দিতে হয়।
 

শুভানুধ্যায়ীদের প্রতি অগ্রীম ঈদ শুভেচ্ছা জানিয়ে আফজাল হোসেন পন্টি বলেন, পরিবার পরিজন, আত্মীয়-স্বজন সবাইকে নিয়ে সকলের ঈদ আনন্দ ছড়িয়ে পড়–ক সবার মাঝে এই কামনা করি। 

এই বিভাগের আরো খবর