রোববার   ২৬ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৩ ১৪২৬   ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

সারা দুনিয়া শেখ হাসিনার প্রশংসা করছে : মন্ত্রী গাজী 

প্রকাশিত: ৬ ডিসেম্বর ২০১৯  

রূপগঞ্জ (যুগের চিন্তা ২৪) : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরার পরই দেশ এগিয়ে গেছে। দেশকে উন্নয়নের ধারায় এগিয়ে নিয়ে গেছেন তিনি। শেখ হাসিনার বলিষ্ট নেতৃত্বের কারনেই আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে দেশে অভাবনীয় সাফল্য অর্জিত হয়েছে। সেজন্য সারা দুনিয়া শেখ হাসিনার প্রশংসা করছে।

শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার বরপা এলাকায় মজুমদার গ্রুপের উদ্যোগে আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশকে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলার কাজ চলছে। বাংলাদেশ এখন যে ইতিবাচক দিক ও ধারায় ফিরে এসেছে, তার রূপকারও বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা বাংলাদেশের মানুষের মুক্তির অগ্রদূত। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন, তাঁর কন্যা শেখ হাসিনা দেশের অর্থনৈতিক মুক্তি এনে দিয়েছেন।

মন্ত্রী বলেন, দেশ স্বাধীনের পর বঙ্গবন্ধু দেশের জন্য একের পর এক যুগান্তকারী উদ্যোগ গ্রহণ এবং দেশকে গড়ার কাজ করছিলেন। কিন্তু তিনি বেশি দুর এগিয়ে যেতে পারেন নি। তাকে ঘাতকরা হত্যা করে দেশকে পিছিয়ে দেয়। 

পরবতীতে তারই কন্যা শেখ হাসিনা দেশের হাল ধরেন। যেমন বাবা, তেমন মেয়ে। বঙ্গবন্ধুর সব স্বপ্ন পূরণ করছেন তাঁরই কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

বঙ্গবন্ধু বেঁচে থাকলে অনেক আগেই আমরা আরো উপরে উঠতে পারতাম। এখন আমরা পাকিস্তানের চেয়ে অনেক উপরে। দেশের সর্বক্ষেত্রে আমাদের অর্জন গর্ব করার মতো।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর ডাকে ১৯৭১ সালে এ দেশ স্বাধীন হয়েছে। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার মাধ্যমে বাংলাদেশের উন্নয়ন কে ধ্বংস করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়ন ফিরে এসেছে। 

গ্যাস-বিদ্যুত ছাড়া শিল্প কারখানা হয় না। বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা কুইক রেন্টালের মাধ্যমে শিল্প কারখানায় বিদ্যুৎ দিয়েছে। ব্যাপক হারে গড়ে উঠেছে শিল্প কারখানা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশে শিল্প বিপ্লব শুরু হয়েছে। আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য কোনো সরকার এদেশের উন্নয়ন করে নাই। 

তিনি শিল্প কারখানার মালিকদের উদ্দেশে বলেন, শ্রমিক ছাড়া কারখানা চলে না। আপনারা শ্রমিকদের নিজের সন্তানের মতো ভালোবাসবেন। আপনাদের কারখানার উন্নতি হবে। ওদের শ্রমের বিনিময়ে আপনারা শিল্পপতি হচ্ছেন। 

অনেক কারখানার মালিক শ্রমিকদের বেতন দেয় না। শ্রমিকরা না খেয়ে থাকে। তারা বাসা ভাড়া দিতে পারে না। শ্রমিকরা রাস্তায় ঘুমায়। কারখানার মালিকদের কাছে আমার (গাজী) অনুরোধ থাকবে আপনারা শ্রমিকদের বেতন ঠিক মতো পরিশোধ করবেন। 

মন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা ইকোনোমিক জোন করেছে। সেই ইকোনোমিক জোনে বিভিন্ন শিল্প কারখানা গড়ে উঠেছে। বঙ্গবন্ধু উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা নির্মানের স্বপ্ন দেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য দেশের হাল ধরেছেন তার কন্যা শেখ হাসিনা।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, মজুমদার গ্রুপের চেয়ারম্যান আবুল কাসেম মজুমদার, মজুমদার গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সামসুজ্জামান, আওয়ামীলীগ নেতা রমজান হোসেন সাউদ, তারাবো পৌরসভা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মোস্তাফিজুর রহমান মোল্লা, উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান শাহিনসহ অনেকে।


 

এই বিভাগের আরো খবর