শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সারাদিন সবাই মিলে সালাম তুলতাম : আব্দুল হাই

প্রকাশিত: ২ জুন ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪): ঈদ মানেই খুশি। মানুষের মাঝে আনন্দের সুখ বার্তা বয়ে আনে ঈদ। প্রতিটি মানুষের মাঝেই এক ধরণের অন্যরকম অনুভূতি কাজ করে এই ঈদকে ঘীরে। সকলেই যেন অতিতের সকল কিছু ভুলে গিয়ে মিলিত হয় ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে। তাই এই দিনটি ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের জন্য একটি বিশেষ দিন। তাই যুগের চিন্তা ২৪ এর এবারের ঈদ আড্ডায় ঈদের প্রস্তুতি এবং খুটিনাটি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল হাই। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন শাহজাহান দোলন। 

 

ঈদে প্রস্তুতির বিষয়ে আব্দুল হাই বলেন, আমি সব সময়ে আমাদের গ্রামের বাড়িতেই ঈদ করি। তবে মাঝে মাঝে যদি আমলাপাড়ায় করা হয়। তবে গ্রামে বেশি ভাল লাগে। এক সাথে গ্রামের মানুষদের সাথে মিশতে পারি। কথা বলি আড্ডা দেই খুব ভাল লাগে। ঈদের কেনাকাটা বলতে, পরিবারের বেশ কয়েক জনেরটা শেষ। ছেলে আছে আরো অন্যান্য লোকজন আছে সকলের কেনাকাটা মোটামুটি শেষ। তবে আমি এখনও কিছু কিনি নাই। আর আমার কি এখন আলাদাভাবে মার্কেট করতে হয়? একটা পাঞ্জাবি হলেই হয়।

 

ঈদের দিন খুবই ব্যস্ততার মধ্য দিয়ে কাটে জানিয়ে আব্দুল হাই বলেন, ঈদের দিনে আমাদের বিশেষ কোন পরিকল্পনা নেই। আমলাপাড়ায় থাকলে কালিবাজার মসজিদে নামাজ পড়বো, তারপর নেতাকর্মীদের সাথে কুশল বিনিময় করবো। ঠিক গ্রামের বাড়িতে থাকলেও মসজিদে নামাজ শেষে সকলের সাথে কথা বলবো। এইতো।

 

ছোটবেলার ঈদ আর এখনকার ঈদের মধ্যে অবশ্যই পার্থক্য রয়েছে জানিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বলেন, ছোট বেলার ঈদ আর এখনকার ঈদের মধ্যে অনেক পার্থক্য রয়েছে। এখন অনেক কিছু চিন্তা করতে হয়, তখন করতে হতো না। আমরা সমবয়সী যারা ছিলাম সারাদিন সালামি তুলতাম সবাই মিলে। মাথায় ছিল টাকা দিয়ে বাজারে গিয়ে মিষ্টি খাবো। তারপর আবার গুনতাম কার বেশি টাকা।

 

আব্দুল হাই তার দলের সকল নেতাকর্মীদের ঈদের অগ্রীম শুভেচ্ছা ও শুভকামনা জানিয়ে বলেন, আমার পক্ষ থেকে সকলকে ঈদের অগ্রীম শুভেচ্ছা। আর দলের নেতাকর্মীদের বলতে চাই আপনারা সকলে মিলেমিশে থাকবেন এক সাথে কাজ করবেন। কেউ নেতা হয়েই নিজের ভেতরে কোন রকমের অহঙ্কার রাখবেন না।

এই বিভাগের আরো খবর