রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা ও অপপ্রচারের প্রতিবাদে সমাবেশ

প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়নগঞ্জের ৮ পত্রিকার ১৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে উদ্দেশ্যমূলক মিথ্যা মামলা দায়ের, চট্টগ্রামের ৪ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে হয়রাণীমূলক মামলাসহ সারাদেশে গণমাধ্যম কর্মী হয়রাণী-মামলা এবং বিশিষ্ট সাংবাদিক-কলামিস্ট পীর হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার সকাল ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দু’ঘন্টা ব্যাপী প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 

 

বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের আয়োজনে অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সমাবেশে কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কার্যকরী সভাপতি আবুল হোসেন তালুকদার। 

 

সমাবেশে আইন উপদেষ্টা এ্যাড. কাওসার হোসাইন, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতা মানিক লাল ঘোষ, সবুজ আন্দোলনের চেয়ারম্যান বাপ্পী সরদার, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি মোফাজ্জল হোসাইন, আকরাম হোসেন, যুগ্ম-সম্পাদক মোশারফ হোসেন নীলু, সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান, কেন্দ্রীয় নেতা রিয়াজুল হাসান অভি, আনোয়ার হোসেন, আলী হোসেন, ঢাকা জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, যুগ্ম-সম্পাদক আনিস লিমন, ঢাকা জেলার নেতা বেলায়েত হোসেন, নারায়নগঞ্জ বন্দর কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিপু, আশুলিয়া কমিটির সদস্য সচিব মৃদূল ধর প্রমুখ। 

 

বক্তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, তথ্য মন্ত্রনালয়ের দ্বারা সারাদেশে সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলার তথ্য সংগ্রহ করে রাষ্ট্রীয় ভাবে ব্যবস্থা গ্রহন করুন। একদিকে উন্নয়ন আর অন্যদিকে গণমাধ্যম কর্মীদের নির্যাতন তা হতে পারেনা। 

 

রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মী, দূর্ণীতিবাজ ও সন্ত্রাসিরা দেশের সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে মামলা-হামলা-হয়রাণী ও জুলুম অব্যাহত রেখে গণমাধ্যমের কন্ঠরোধের অপচেষ্টা করা হচ্ছে। দেশে আজ শত শত সাংবাদিক মামলা-হামলার শিকার। 

 

দ্রুত সাংবাদিকদের তালিকা প্রণয়ন করে অপসাংবাদিক-হলুদ সাংবাদিক ও ভুয়া সাংবাদিকের মত কালিমা থেকে সাংবাদিকরা মুক্তি চায়। তথ্য অধিদপ্তরকে সাংবাদিকদের অভিভাবক দপ্তর হিসেবেও স্বীকৃতি চান সাংবাদিকরা। দীর্ঘ ৪৮ বছরের অরক্ষিত গণমাধ্যম অঙ্গনের মাঝে সুরক্ষারও দাবি করেন সংগঠনের নেতারা। 

 

সংবাদ প্রকাশের জেরধরে নারায়নগঞ্জে ৮টি পত্রিকার ১৬জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মিথ্যা-ষড়যন্ত্রমূলক মামলা করে তাদেরকে হয়রাণী করা হচ্ছে। এছাড়া চট্টগ্রামের ৪জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরসহ বিশিষ্ট সাংবাদিক কলামিস্ট পীর হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভ্রান্তিকর অপপ্রচার করছে একটি চক্র। এদের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের দাবি করা হয়। 

 

অবিলম্বে ১-৭ মে জাতীয় গণমাধ্যম সপ্তাহকে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতিসহ বিএমএসএফ ঘোষিত ১৪ দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য সরকার এবং গণমাধ্যম গুলোকে মেনে নেয়ার দাবি করেন বক্তারা। আগামি ১ ডিসেম্বর তৃতীয়বারের মত বিএমএসএফ’র উদ্যোগে রাজধানীতে বিজয় শোভাযাত্রা অনুষ্ঠান সফল করতে সকলের সহযোগিতা চাওয়া হয়। 
 

এই বিভাগের আরো খবর