শনিবার   ০৪ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২০ ১৪২৬   ১০ শা'বান ১৪৪১

শ্রমজীবীদের মাঝে ছাত্র ইউনিয়নের স্যানিটাইজার বিতরণ

প্রকাশিত: ১৮ মার্চ ২০২০  

যুগের চিন্তা ২৪ : বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসের বিস্তাররোধে নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী মানুষ এবং শিক্ষার্থীদের মাঝে স্যানিটাইজার বিতরণ শুরু করছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন।


মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি থেকে এই হ্যান্ড স্যানিটাইজেশন বিতরণ শুরু হয়। এ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলে জানান ছাত্র ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ।


ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি মেহেদি নোবেল বলেন, সারাদেশ করোনা আতঙ্কে কাপঁছে। এখন পর্যন্ত দেশে ১০ জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে আছে বাংলাদেশের শ্রমজীবী মানুষরা। অসাধু ব্যবসায়ীদের সিন্ডিকেটের কারণে স্যানিটাইজার, মাস্কের বাজারে অপ্রাপ্যতা ও দুই থেকে তিনগুণ দাম বৃদ্ধি দেখা দিয়েছে। তাই নিম্নবিত্ত আয়ের শ্রমজীবী মানুষ ও শিক্ষার্থীদের জন্য দেশব্যাপী বিনামূল্যে স্বাস্থ্যপণ্য সরবরাহ শুরু করেছে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন।

 

সাধারণ সম্পাদক অনিক রায় বলেন, দেশের এই ক্লান্তিলগ্নে আমরা শ্রমজীবী মানুষ ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বর্তমান সময়ে একজন শ্রমিক মেহনতি মানুষের পক্ষে স্বাস্থ্যপণ্য ক্রয় করা সম্ভব না। দেশের এই সংকটময় সময়ে আমরা শ্রমজীবী মানুষ ও শিক্ষার্থীদের জন্য বিনামূল্যে হ্যান্ড স্যানিটাইজার সরবারহ করছি।


প্রায় ২৫ লিটার হ্যান্ড স্যানিটাইজার তৈরি করেছে সংঠনটি। তবে বেশি পরিমাণে স্যানিটাইজার তৈরিতে বিপুল পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন। এই অর্থ উত্তোলনে ছাত্র ইউনিয়ন গণতহবিল সংগ্রহের উদ্যোগ নিয়েছে। বিকাশ, রকেট, নগদ ও ব্যাংক একাউন্টে ছাত্র ইউনিয়নকে আর্থিক সহয়তা প্রদান করে দুস্থ মানুষ ও শিক্ষার্থীদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন ছাত্র ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ।


সাহায্যের পাঠানোর মাধ্যম : নগদ-০১৯৭১১০৪০৭৭ (পার্সোনাল), বিকাশ-০১৭৮৪৯৮৩৫৭৭ (পার্সোনাল), রকেট-০১৭৮৪৯৮৩৫৭৭১ (পার্সোনাল), ব্যাংক একাউন্ট-০১০০০৩৫৯২৫৭৪ (বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন, জনতা ব্যাংক, ঢাবি শাখা)।


একইসঙ্গে জরুরি প্রয়োজনে তিনটি ফোন নম্বরও চালু করেছে ছাত্র ইউনিয়ন। এগুলো হলো- ০১৮১৪ ৩৫৫ ৬৩৭, ০১৬৮০ ১২৩ ৫২২, ০১৭৮৪ ৯৮৩ ৫৭৭।

এই বিভাগের আরো খবর