রোববার   ৩১ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৭ ১৪২৭   ০৮ শাওয়াল ১৪৪১

রূপগঞ্জে ইতিহাস গড়লেন রফিক চেয়ারম্যান

রাসেল আহমেদ

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২০  

দেশব্যাপী চলছে করোনা সংকট। এই সংকটময় মুহূর্র্তে রূপগঞ্জের হতদরিদ্র ও অসহায় মানুষের মুখে হাসি ফুটিয়েছেন গরীবের বন্ধু রফিক চেয়ারম্যান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে করোনাকালের এই সংকট মুহূর্তে হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণে রূপগঞ্জে নজিরবিহীন ইতিহাস গড়লেন রূপগঞ্জের রত্ন, গরীবের বন্ধু খ্যাত রংধনু গ্রুপ ও কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক। 

 

শুক্রবার (২২ মে) দিনব্যাপী রূপগঞ্জের কায়েতপাড়া, মুড়াপাড়া, ভোলাব, দাউদপুর ইউনিয়নের লোকজনের মাঝে ঈদসামগ্রী ও শাড়ি-লুঙ্গী বিতরণ করা হয়।  সকাল ১১ টায় উপজেলার মুড়াপাড়া বাজারস্থ রূপগঞ্জ আওয়ামী লীগের প্রধান কার্যালয়ে প্রথম দফায় ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়। পরে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন, দাউদপুর ইউনিয়ন, মুড়াপাড়া ইউনিয়ন ও ভোলাব ইউনিয়নের হতদরিদ্রদের মাঝে ঈদসামগ্রী বিতরণ করা হয়। করোনাকালে এযাবত কয়েক দফায় বসুন্ধরা ও রংধনু গ্রুপের উদ্যোগে রূপগঞ্জে মোট ৫০ হাজার মানুষের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। 

 

করোনাকালে যখন অর্থনৈতিক অবস্থা বিপর্যস্ত, মানুষ যখন কষ্টে দিনাতিপাত করছে, ঈদে সেমাই-চিনি, তেল-চাল নিয়ে উদ্বিগ্ন ঠিক তখনই এসব মানুষের পাশে দাঁড়ালেন রফিকুল ইসলাম রফিক। ঈদকে সামনে রেখে দুস্থ্যদের মাঝে পোলাও চাল, চাল, ডাল, সেমাই, আটা, ময়দা, চিনি, দুধ, তেল, মুরগী বিতরণ করা হয় ও ৭ হাজার ৫০০ পরিবারকে শাড়ি-লুঙ্গী প্রদান করা হয়। 

 

বিতরণকালে রংধনু গ্রুপ ও কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক বলেন, মানবতার মা জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা দিয়েছেন। আপনাররা আমাকে নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশক্রমে গত আড়াইমাস ধরে রূপগঞ্জের মানুষের পাশে আছি। আগামী দিনেও থাকবো। প্রধানমন্ত্রী আমাদের বলেছেন সব সময় যেনো আপনাদের পাশে থাকি। 

 

তিনি আরও বলেন, আপনার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ যেনো তাকে সুস্থ রাখেন। আপনার দোয়া করবেন বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান মহোদয়ের জন্য। যিনি রূপগঞ্জের মানুষকে নিয়ে ভাবেন। রূপগঞ্জের মানুষের জন্য কিছু করার চিন্তা করেন। বসুন্ধরা গ্রুপের চেয়ারম্যান মহোদয় সব সময় রূপগঞ্জের মানুষের পাশে থাকবেন। 

 


ঈদসামগ্রী নিতে আসা অনেককে বলেছেন, এই সংকটকালে রফিক চেয়ারম্যান যেভাবে ত্রাণ বিতরণ করেছেন সেটা রূপগঞ্জে নজিরবিহীন ইতিহাস। 

 

এসময় উপস্থিত ছিলেন থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূঁইয়া, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম, রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল হাসান, জেলা পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি হাফিজুর রহমান সজীব, রূপগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মাসুম চৌধুরি অপু, মুড়াপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলীমউদ্দিন, কায়েতপাড়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আউয়াল, আওয়ামী লীগ নেতা ইয়ার হোসেন, কায়েতপাড়া ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেন, মাসুম আহম্মেদ, মতিন ভূঁইয়া, আব্দুল হাই, সাদেকুর রহমান, মহিলালীগ নেত্রী লাকী মনির প্রমুখ।

 

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য ও রংধনু গ্রুপের পরিচালক মিজানুর রহমান মিজান বলেন, বসুন্ধরা ও রংধনু গ্রুপ রূপঞ্জের মানুষের পাশে ছিলো। ভবিষ্যতেও থাকবেন। আপনাদের প্রিয় মানুষ রফিক ভাই আপনাদের জন্য উদার। 

 

রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূঁইয়া বলেন, সরকারিভাবে সহযোগিতার পাশাপাশি বসুন্ধরা ও রংধনু গ্রুপ বেসরকারিভাবে রূপগঞ্জের মানুষের পাশে দাঁড়ানোয় সাধুবাদ জানাচ্ছি। 

 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম বলেন, চরম এই দুঃসময়ে বসুন্ধরা ও রংধনু গ্রুপ মানুষের পাশে থাকায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ধান্যবাদ জানাচ্ছি।  


 
ইউপি সদস্য মোশারফ হোসেন, মাসুম আহম্মেদ, মতিন ভূঁইয়া বলেন, রফিক ভাই যেভাবে এই করোনার সময় রূপগঞ্জের মানুষের পাশে ছিলেন সেটা রূপগঞ্জে ইতিহাস হয়ে থাকবে।  সাধারণ মানুষের দুঃখে তিনি সব সময় পাশে থাকেন। 

 

জানা গেছে, বসুন্ধরা গ্রুপ ও রংধনু গ্রুপ করোনাকালের এই সংকটকালে রূপগঞ্জের মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। গত আড়াই মাস ধরে উপজেলার কর্মহীন, খেটে-খাওয়া, বিধবা, বেকার যুবক ও হতদরিদ্র মানুষের মাঝে চাল, ডাল, তেল, আটা, লবণ বিতরণ করে আসছেন। এ পর্যন্ত ৫০ হাজার মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। মাহে রমজানের আগের দিন কয়েক হাজার মানুষের মাঝে গরুর মাংস বিতরণ করা হয়। 

এই বিভাগের আরো খবর