শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭   ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

মেয়রের প্রস্তাবনা মতেই করোনার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে খানপুর হাসপাতাল

প্রকাশিত: ৮ এপ্রিল ২০২০  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : করোনা রোগীদের জন্য চিকিৎসার জন্য ঢাকার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালের মতো বিশেষায়িত হাসপাতাল খোলার ব্যাপারে নারায়ণগঞ্জের খানপুরের ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালকে করোনা রোগীদের চিকিৎসা দেয়ার প্রস্তাবনা দিয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী।  এব্যাপারে মেয়র আইভী জানিয়েছেন, ‘আমি ডিসি, ডিজি হেলথ এবং সিভিল সার্জনকে একটা প্রস্তাব দিয়েছি। লোকালয় থেকে দূরে জাপানিরা ৩০০ শয্যার একটি হাসপাতাল করে দিয়েছিল। সেই হাসপাতালটিকে করোনা হাসপাতালে রূপান্তর করা  যেতে পারে। আমার প্রস্তাবের পর এ বিষয়ে অগ্রগতির কথা জানি না।’

 

এদিকে মেয়রের প্রস্তাবনা অনুসারেই খানপুরের ৩০০ শয্যা হাসপাতালটিকে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।  এ কারণে বৃহস্পতিবার থেকে হাসপাতালটির জরুরি বিভাগ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। হাসপাতালে ভর্তি থাকা রোগীদের অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করে অন্যান্য বিভাগগুলোও বন্ধ করা হবে বলে বুধবার রাতে জানিয়েছেন খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. সামসুদ্দোহা সঞ্চয়।

 

তিনি জানান, হাসপাতালটিকে করোনা রোগী চিকিৎসার জন্য নির্বাচন করা হয়েছে। অফিসিয়ালি কোন চিঠি হাতে না পেলেও এবিষয়ে ঢাকা থেকে জানানো হয়েছে। সেখানে করোনা রোগীদের চিকিৎসা করা হলে সেখানে অন্যান্য রোগী রাখা যাবে না। শুধুমাত্র করোনা চিকিৎসার জন্য হাসপাতালটিকে তৈরি করতে হবে। বৃহস্পতিবার থেকে জরুরি বিভাগটি বন্ধ থাকবে। এছাড়া যারা ভর্তি আছেন তাদের অন্য হাসপাতালে স্থানান্তর করা হবে। বাকি সববিভাগ বন্ধ করে আগামী ১০ দিনের মধ্যে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালটি পুরোপুরি প্রস্তত করা হবে। 

 

সঞ্চয় জানান, শহরের নবনির্মিত সিজেএম কোর্ট ভবনটি করোনা রোগীদের জন্য চিকিৎসালয় তৈরির প্রস্তাবনা আমাদের ছিল। ভিন্ন কোথাও বড় আঙ্গিকে খালি ভবন পাওয়া যাচ্ছেনা বিধায় ৩০০ শয্যা হাসপাতালটির বর্তমান কার্যক্রম বন্ধ রেখে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা করতে হচ্ছে। 
 

এই বিভাগের আরো খবর