শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৪ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

বাবুর রাজ্যে শামীমের হানা !

প্রকাশিত: ৩১ আগস্ট ২০১৯  

বিশেষ প্রতিনিধি (যুগের চিন্তা ২৪) : আাড়াইহাজারের একচ্ছত্র এমপি নজরুল ইসলাম বাবুর রাজ্যে এবার হানা দিলেন শামীম ওসমান। এতেকরে প্রমাদ গুণছেন বাবুর অনুসারীরা। আগামী দিনগুলোতে যে বাবুর একক রাজত্ব খর্ব হতে চলেছে তা আন্দাজ করে অনুসারীদের অনেকেই শংকিত।

 

গতকাল শুক্রবার আড়াইহাজারের আরেক শক্তিশালী নেতা নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল পারভেজের পিতার তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়। এই মৃত্যুবার্ষিকী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এমপি শামীম ওসমান। বাবু’র তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বী নেতা ইকবাল পারভেজের বাড়িতে শামীম ওসমানের আগমনের হেতু খুঁজতে পেরেশান হচ্ছেন অনেকে।

 

যারা উঠতে বসতে বাবুর গুণকীর্তন করেন এ ঘটনায় তারাই উল্টো সুর ধরেছেন। অনেকে বলছেন, যে উছিলাতেই ইকবাল পারভেজ এমপি শামীম ওসমানকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যান না কেনো-মূলত: বাবুকে দেখানোর জন্যই তিনি শামীম ওসমানকে নিয়ে যান।

 

শুক্রবার আড়াইহাজারের উচিৎপুরা শান্তিবাজার এলাকায় ইকবাল পারভেজের বাড়িতে যখন অনুষ্ঠান চলছিল-তখন অন্য এলাকায় একটি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এমপি নজরুল ইসলাম বাবু। বাবুর অনুষ্ঠানস্থলে সবার মুখে মুখে ফিরছিল শামীম ওসমানের নাম। নেতারা আলোচনা করছিলেন নারায়ণগঞ্জের প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতা ও এমপি শামীম ওসমান ইকবাল পারভেজের বাড়িতে কেনো আসলেন।

 

তাঁর উদ্দেশ্য কী ? ইকবাল পারভেজের বাড়িতে কেনো আসবেন। তাহলে আগামীতে এমপি শামীম ওসমান বাবুর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইকবাল পারভেজের পক্ষে কাজ করবেন। সেক্ষেত্রে বাবুর কি হাল হবে ? পদ পজিশন টিকিয়ে রাখা মুশকিল। এমনকি চলে যেতে পারে গোটা রাজত্ব।

 

জানাগেছে, ইকবাল পারভেজ এর সাথে বাবুর দ্বন্দ্ব আধিপত্য নিয়ে। দু’জনের মধ্যে চলে আধিপত্যের লড়াই।  কোথায় লড়াই ? উত্তর আড়াইহাজারে। আধিপত্যের লড়াইয়ে কেউ কাউকে ছাড় দিতে নারাজ। এমপি নজরুল ইসলাম বাবু দুর্নীতির মামলা করিয়ে এবং মামলা তদন্ত করিয়ে  জেলখাটায় ইকবাল পারভেজকে।

 

ইকবাল পারভেজও ছাড়বার পাত্র নন। নজরুল ইসলাম বাবুর বিরুদ্ধে দুদকে তদন্ত করান। বাবুও এতে হয়রানি হয়। যা এখনো নিষ্পত্তি হয়নি। বাবু মনে করে আড়াইহাজার তাঁর রাজ্য। তিনি পরপর তিনবারের এমপি। ইকবাল পারভেজ মনে করে বাবুকে কেনো ছাড় দিব। আমি বড় মাপের নেতা। অর্থবিত্ত আমারও আছে।

 

রাজনীতিতে এখন বইছে পরিবর্তনের হাওয়া। গত সংসদ নির্বাচন ও আগেও বাবুর সাথে শামীম ওসমানের দহরম মহরম সম্পর্ক ছিল। সম্পর্কটা রূপ নেয় মামা-ভাগ্নেতে। কথিত আছে বাবুর সাথে শামীম ওসমানের ব্যবসা ছিল। বাবু ইকবাল পারভেজকে  দেখতে পারতোনা। সেই সূত্র ধরে শামীম ওসমানও পছন্দ করতোনা ইকবাল পারভেজকে।

 

বাবু ও শামীম চলাফেরাও ছিল একই গোত্রের। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে দেখাগেছে, নির্বাচনের পর থেকে শামীম ওসমান বলয়ের সাথে আস্তে আস্তে কমতে থাকে বাবুর যোগাযোগ।

 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানাগেছে, গত ২২ জুলাই আড়াইহাজার থানা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে উপস্থিত ছিলেন নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তখন থেকেই স্পষ্ট হয়ে উঠে বাবুর সাথে আইভী ব্লকের ঘনিষ্ঠতা। আইভী ব্লকের সাথে বাবুর ঘনিষ্ঠতা বাড়ায় দূরত্ব তৈরী হয় বাবু ও শামীমের মধ্যে। এই সুযোগটি লুফে নিয়ে কাজে লাগায় ইকবাল পারভেজ।

 

সে নিজ যোগ্যতায় মুগ্ধ করে শামীম ওসমানের সাথে ঘনিষ্ঠ হয়। দিনে দিনে ইকবাল পারভেজের সাথে শামীম ওসমানের ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। অপরদিকে, বাবুর সাথে যাদের ঘনিষ্ঠতা বাড়ছে ইকবাল পারভেজ তাদের সাথে চলবেনা। এই ব্যাপারটা ঘটা করে জানান দিতেই পিতার মৃত্যুবার্ষিকীতে প্রধান অতিথি করে নিয়ে যান শামীম ওসমানকে।

 

এ ঘটনায় আওয়ামীলীগ নেতারা বলছেন, ইকবাল পারভেজ যে উছিলাতেই শামীম ওসমানকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যাকনা কেনো, মূলত: বাবুকে দেখানোর জন্য জন্যই শামীমকে নিয়ে যান। একই সময়ে আড়াইহাজারের অন্য এক এলাকায় একটি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এমপি নজরুল ইসলাম বাবু।

 

সে অনুষ্ঠানে সবাই আলোচনা করেন শামীম ওসমানকে নিয়ে। শামীম ওসমানের মত প্রভাবশালী এমপি ইকবাল পারভেজের পাশে থাকলে বাবুর ভবিষ্যত ঝরঝরে হয়ে পড়বে। আরো নানা আলোচনা চলে।

 

পর্যবেক্ষক মহলের মতে, ইকবাল পারভেজের বাড়িতে গিয়ে শামীম ওসমান ও বেশ ঘটা করে বাবুকে জানান দিল, তোমার প্রতিপক্ষের বাড়িতে এসে তোমার দূর্গে হানা দিয়ে গেলাম। ভবিষ্যতে আড়াইহাজারে নেতৃত্বে পরিবর্তন আসবে। একক রাজত্বের দিন শেষ।

এই বিভাগের আরো খবর