সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরি পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত 

প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০১৯  

বন্দর (যুগের চিন্তা ২৪) : সোমবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যকরি পরিষদের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সভায় ১০ ডিসেম্বরের পূর্বে বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের তারিখ ও স্থান নির্ধারনের পাশাপাশি একটি কার্যকর কমিটি গঠনের বিষয়ে সকলের মতামত নেয়া হয়। 

 

উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা তাদের মতামত ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, নবগঠিতব্য কমিটিতে যাতে পরিচ্ছন্ন ও ত্যাগী নেতারা স্থান পায় সেদিকে গুরুত্ব দিতে হবে। 

 

বীরমুক্তিযোদ্ধা এম এ রশিদকে যেভাবে আমরা বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছি, ঠিক তেমনিভাবে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় পুনরায় বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত করতে চাই। 

 

তাছাড়া তিনি যাকে পছন্দ করবেন, যার সাথে কাজ করে তিনি স্বাচ্ছন্দবোধ করবেন এবং যাকে পাশে রাখলে সংগঠনের জন্য ভালো হবে এমন একজনকে তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করবেন বলে আমাদের প্রত্যাশা। 

 

এসময় সভার সভাপতি হিসেবে বন্দর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম এ রশিদ তার বক্তব্যে বলেন, দলীয় নির্দেশনা মোতাবেক ১০ ডিসেম্বরের পূর্বে কমিটি জমা দিতে হবে। তাই এই অল্প সময়ে ইউনিয়ন কমিটিগুলো ঢেলে সাজানো অসম্ভব। 

 

চলতি মাসের ২৩ থেকে ২৫ তারিখের যেকোন একটি দিন সম্মেলন আয়োজনের অনুমতি দিতে জেলা কমিটিকে অবহিত করা হয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন জায়গার মধ্য থেকে যাচাই বাছাই করে মদনপুরে ভোজন বিলাস রেস্টুরেন্টের বিপরীত পাশে একটি খালি মাঠে সম্মেলন আয়োজনের কথা ভাবা হচ্ছে। 

 

আল্লাহ যাকে পদ দান করেন সেই পদ পাবে। আপনাদের সাথে নিয়ে কাজ করার জন্য যদি আল্লাহ সুযোগ দেন তাহলেই এ সম্মান পাব বলে আশা করি। নানান ঝড় ও প্রতিকূলতা মোকাবেলা করেছি, আপনারা সাথে ছিলেন। সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও সকলের সমর্থন ছিলো বিধায় উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। 

 

আমাদের ঐক্য ধরে রাখতে হবে, তাহলে আমরা যে কোন কঠিন পরীক্ষাকে সফলতার সহিত মোকাবেলা করতে পারবো। উপস্থিত থেকে সম্মেলন সফল করতে সকলকে অগ্রীম আমন্ত্রণ জানাচ্ছি। 

 

এসময় নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল কাদির ডিলার, বন্দর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা শফিউদ্দিন আহাম্মেদ, বর্তমান ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবেদ হোসেন, সিনিয়র সহ-সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সম্পাদক ভোলানাথ দাস, সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবির এলিন ও এম এ রউফ, প্রচার সম্পাদক হাবিবুর রহমান মিয়া, যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক শহিদুল হাসান মৃধা, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সোনা মিয়া, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক মোস্তফা মাস্টার, সাবেক কৃষি বিষয়ক সম্পাদক শাহজাহান মোল্লা, সাবেক আইন বিষয়ক সম্পাদক আমির হোসেন দেওয়ান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ফয়সাল মোহাম্মদ সাগর, স্বাস্থ্য সম্পাদক আইয়ুব আলী, সদস্য আরজু রহমান ভূঁইয়া, ইদ্রিছ আলী দেওয়ান গহন, মুক্তিযোদ্ধা জালাল উদ্দিন, নাসিক ২৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর আনোয়ার হোসেন আনু, ধামগড় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাজী সিরাজুল ইসলাম, সহ-সভাপতি হাজী নাসির উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলী ভূঁইয়া, মদনপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি শুক্কুর আলী, সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন, কলাগাছিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম কাশেম, মুছাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবুর রহমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, মুরাদপুরের বাসিন্দা ও মুক্তিযোদ্ধা আলী আহাম্মদ সহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। 
 

এই বিভাগের আরো খবর