শুক্রবার   ২৯ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৭   ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

বন্দরে বাপ-চাচার নির্দেশে দাদাকে কোপালো নাতি

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২০  

বন্দর (যুগের চিন্তা ২৪) : নির্দেশ দিয়েছে বাপ-চাচা ! নাতি কোপালো বৃদ্ধ দাদাকে। রীতিমত কুপিয়ে জখম। শুক্রবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে বন্দর উপজেলার কাইনালী ভিটা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ নির্দেশদাতা সামসুল হক ও নাতি রাসেল (১৮) কে গ্রেপ্তার করেছে। 

 

আহত বৃদ্ধের নাম মো. ইয়ানূছ মিয়া (৮০)। গ্রামবাসী আহত বৃদ্ধকে উদ্ধার করে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বৃদ্ধ মো.ইয়ানূছ মিয়া জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে আদালতে মামলা করেছিলেন। ওই মামলায় ছেলে নবীর হোসেন জামিনে এসে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে গ্রামবাসী জানান।

 

জানাগেছে, উপজেলার মদনপুর ইউনিয়নের কাইনালীভিটা গ্রামের ৮০ বছর বয়সের বৃদ্ধ মো. ইয়ানূছ মিয়ার ৩ ছেলে। বড় ছেলে জজ মিয়া, মেঝো ছেলে ছামসুল হক, ছোট ছেলে নবীর হোসেন। সম্পত্তি লিখে দিতে হবে অন্যথায় জমি বিক্রি করে টাকা দিতে হবে বলে বৃদ্ধ বাবাকে মানসিক চাপ সৃষ্টি করে যাচ্ছে মেঝো ছেলে সামছুল হক ও ছোট ছেলে নবীর হোসেন। ওই দুই ছেলের কথামতো জমি বিক্রি করে টাকা দিচ্ছে না বলে বৃদ্ধ পিতাকে শারীরিক নির্যাতন করতো দুই ছেলে ও নাতি রাসেল। 

 

বৃদ্ধ নিরুপায় হয়ে নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি সি-আর মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় ছেলে নবীর হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। নবীর হোসেন জামিনে ছাড়া পেয়ে বৃদ্ধ পিতাকে জমি বিক্রি করে টাকা দিতে আবারো চাপ সৃষ্টি শুরু করে। এতে বৃদ্ধ রাজি হয়নি বরং ছেলেদের ওপর ক্ষেপে উঠে। 

 

শুক্রবার দুপুর দুই টার দিকে এই নিয়ে নিজ বাড়িতে বৃদ্ধের সঙ্গে দুই ছেলের কথাকাটি হয়। এক পর্যায়ে বৃদ্ধকে হত্যার উদ্দেশ্যে মারধর শুরু করে। এসময় নাতি রাসেল চাইনিজ কুড়াল দিয়ে এলোপাথারিভাবে দাদাকে কুপিয়ে জখম করে। পরে তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে বৃদ্ধকে উদ্ধার করে বন্দর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এই বিভাগের আরো খবর