বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

বন্দরে প্রশিক্ষন ও লাইসেন্সবিহীন চালকের সাথে বাড়ছে দূর্ঘটনা

প্রকাশিত: ১২ জুলাই ২০১৮  

যুগের চিন্তা ২৪ : বন্দরে বিভিন্ন এলাকায় প্রশিক্ষন ও লাইসেন্স বিহীন নতুন নতুন সিএনজি ও অটো ইজিবাইক চালকগন দূর্ঘটনা সংগঠিত করে প্রতিনিয়ত সাধারন মানুষের জানমালের ব্যাপক ক্ষতি সাধন করে চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

বর্তমানে বন্দর উপজেলার মদনগঞ্জ টু মদনপুর সড়কে ২’শ সিএনজি এবং বন্দর ১নং খেয়াঘাট থেকে মদনগঞ্জ, কলাগাছিয়া ও সাবদী রোটে সিএনজি ও বেবী ৩’শ, নবীগঞ্জ খেয়াঘাট থেকে কাইকারটেক রুটে ২’শ সিএনজি ও বেবীট্যাক্সি যাত্রীবহন কাজে নিয়জিত আছে। এছাড়াও বন্দরের বিভিন্ন এলাকায় যাত্রীবহন কাজে রয়েছে আর প্রায় ৭’শ অটো ইজিবাইক ।

 

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এগুলো এ উপজেলার বিভিন্ন আয়ের মানুষরা ক্রয় করে নিজেরাই চালক সেজে চালানো শুরু করে। এরপর কোন মতে বেবীট্যাক্সি সমিতিতে ভর্তি হয়ে নির্ধারিত কিছু রুটে তারা গাড়ী চালানো শুরু করে। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, এসব চালকগন দক্ষ না থাকায় প্রতিদিন কোন না কোন রুটে দূঘটনা ঘটিয়ে সাধারন মানুষের জানমালে ক্ষতি করে আসচ্ছে।

 

এ ছাড়াও দিন দিন বন্দরে লাইসেন্স বিহীন যান বাহনের সংখ্যা অনেককাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়াও বন্দর উপজেলার বিভিন্ন রুটে চলাচলরত ৮০% চালকের কোন লাইনেন্স নেই। তারপরও তারা চালক হয়ে বন্দরে র্নিবিগ্নে যাত্রী সেবার কাজ করে আসচ্ছে।

 

বন্দর থানা পুলিশের উদাসিনতার কারনে লাইসেন্স বিহীন চালকরা বুক ফুলিয়ে বন্দর উপজেলার বিভিন্ন রুটে অবাধে সিএনজি, বেবীট্যাক্সি ও অটো ইজিবাইক চালিয়ে আসচ্ছে।

 

এ অবস্থা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট নারায়ণগঞ্জ সিটি মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াত আইভী ও বন্দর উপজেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা পিন্টু বেপারী জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সচেতন মহল।

এই বিভাগের আরো খবর