সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬   ১৪ সফর ১৪৪১

নির্মম বাস্তবতা

প্রকাশিত: ২১ এপ্রিল ২০১৯  

আপনি আপনার ঘরে বিশ্রাম করছেন। আপনার ঘর আপনার বাড়ির ৪র্থ তলায়। হঠাৎ আপনি উপলব্ধি করেন আপনার বাড়িতে আগুন লেগেছে। সমস্যা হচ্ছে ঘর থেকে বেরুবার মতো কোন পথ খোলা নেই৷ কারণ আগুনের সূত্রপাত আপনার বাড়ির দোতলা থেকে। আপনি এবারের মতো বেঁচে যাওয়ার প্রার্থনা করছেন। যেকোন মূল্যেই আপনি বাঁচতে চান। ঘরের মধ্যে ছুটাছুটি করছেন আর প্রার্থনা করছেন। 


কী নির্মম হতে পারে সেই মুহূর্তটা ? ধীরে ধীরে পায়ের নিচের মেঝেটা উত্তপ্ত হচ্ছে। আপনি এ ঘর থেকে ও ঘরে ছোটাছুটি করছেন।

 

কোথাও একটু উঁচু জায়গা দেখলে সেটাতেই উঠছেন। কিন্তু সেই জায়গাও উত্তপ্ত হচ্ছে৷ আপনি আপনার পায়ের তালুতে ফোস্কা অনুভব করছেন। মৃত্যু যন্ত্রণা আপনাকে তিলে তিলে গ্রাস করছে। মৃত্যুটাকে আপনি খুব কাছ থেকে দেখছেন! 


এখন আপনার পায়ের তালু প্রায় সম্পূর্ণভাবে দগ্ধ হয়ে গেছে। আপনি আর দাঁড়িয়ে থাকতে পারছেন না। কিন্তু এই নারকীয় মেঝেতে কী করেই বা বসবেন ! তাই দাঁড়িয়ে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। কিন্তু...


এক পর্যায়ে আপনার দেহ মেঝেতে ভেঙে পড়লো। এখন সেই পায়ের তালুতে অনুভব করা নারকীয় তাপ আপনি আপনার পিঠে অনুভব করছেন। 


এতক্ষণ আপনি যেভাবেই হোক বাঁচতে চাইছিলেন। বেঁচে যাওয়ার প্রার্থনা করছিলেন। কিন্তু এখন আর আপনার সেই সাহস নেই। এখন আপনি মৃত্যু প্রার্থনা করছেন... 


তাপ আর ধোঁয়ায় এখন আপনার শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে। কোন রকম হাঁপিয়ে হাঁপিয়ে শ্বাস নিচ্ছেন। আর মেঝেতে আপনার পিঠের চামড়া লেগে যাওয়া অনুভব করছেন। এখন আর আপনার প্রার্থনা করার সামর্থ্য নেই ! 


পৃথিবীতে এতদিনে কুরানো সকল বিশ্বাসই আপনার কাছে অর্থহীন মনে হচ্ছে। এ যাবত সকল প্রার্থনা আপনার কাছে অর্থহীন মনে হচ্ছে। সত্যিই ভাবতে পারছেন ? কী নির্মম হয়েছিলো সেই মুহূর্তটা ! (চকবাজার অগ্নিকাণ্ড-২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯)


 মিরাজ রেজা

 লেখক : উপ-সাংগঠনিক সম্পাদক, প্রথম আলো বন্ধুসভা, নারায়ণগঞ্জ এবং তরুণ উদ্যোক্তা