বুধবার   ১৯ জুন ২০১৯   আষাঢ় ৫ ১৪২৬   ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

নারায়ণগঞ্জে কৃষি শুমারি-২০১৯ এর উদ্বোধন, বর্ণাঢ্য র‌্যালী

প্রকাশিত: ৯ জুন ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : “কৃষি শুমারি সফল করি, সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে  রবিবার (৯ জুন) জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বরে কৃষি শুমারির উদ্বোধন করা হয়।

কৃষি শুমারি-২০১৯ এর উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া। পরে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালীতে নেতৃত্ব দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাসুম বিল্লাহ।

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগধীন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো বিশ্ব খাদ্য ও কৃষি সংস্থার গাইডলাইন অনুসারে সারা দেশে শহর ও পল্লী এলাকায় “কৃষি (শস্য, মৎস্য ও প্রাণীসম্পদ) শুমারি-২০১৮” শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কৃষি শুমারি-২০১৯ পরিচালনা করতে যাচ্ছে। 

কৃষি শুমারি-২০১৯ পরিচালনার মাধ্যমে কৃষি খানার সংখ্যা, খানার আকার, ভূমির ব্যবহার, কৃষির প্রকার, শস্যের ধরন, চাষ পদ্ধতি, গবাদি পশু ও হাঁস-মুরগির সংখ্যা, মাছ চাষ ও কৃষি ক্ষেত্রে নিয়োজিত জনবল সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যাবে।

প্রতি দশ বছর অন্তর বাংলাদেশে কৃষি শুমারি অনুষ্ঠিত হয়। সারা দেশের ন্যায় নারায়ণগঞ্জ জেলা ও এর আওতাধীন ৫টি উপজেলায় একযোগে ৯ জুন হতে ২০জুন পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে তথ্য সংগ্রহের কাজ চলবে।

এ কাজে ২জন জেলা শুমারি সমন্বয়কারি, ৫জন উপজেলা শুমারি সমন্বয়কারি, ৩৬জন জোনাল অফিসার, ৪২০জন সুপারভাইজার ও ২৮৩২জন গণনাকারি নিয়োজিত থাকবেন।

জেলা স্থায়ী শুমারি কমিটির সভাপতি ও জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার উপস্থিতিতে বর্ণাঢ্য র‌্যালীতে বিবিএস সদর দপ্তর’র পরিসংখ্যান কর্মকর্তা সৈয়দা মারুফা শাকি। এসময় রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গ, জনপ্রতিনিধি এবং বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিত সকলকে নিজ নিজ অবস্থান হতে কৃষি শুমারি-২০১৯ করার নিমিত্ত বিনীত আহ্বান জানান জেলা শুমারি সমন্বয়কারি এবং স্থায়ী শুমারি কমিটির সদস্য-সচিব আবদুল আলীম ভূঁইয়া।
 

এই বিভাগের আরো খবর