বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭   ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

ত্রাণের আশায় রাইফেল ক্লাবের সামনে শতাধিক মানুষের ভীড়

প্রকাশিত: ৫ এপ্রিল ২০২০  

যুগের চিন্তা ২৪ :  রোববার (৫ এপ্রিল) দুপুর ১টা। নারায়ণগঞ্জের লিংক রোড সংলগ্ন রাইফেল ক্লাবের সামনের সড়কে শত শত মানুষের ভীড়। দূর-থেকে দেখলে বোঝার উপায় নেই যে, এটি একটি সড়ক! বরং মনে হবে এ যেনো এক বিশাল জনসভার মঞ্চ। মানুষের মাথা আর মাথা। গরীব-দুঃখী, ভিখারী, ভবঘুরে এবং বস্তিবাসী সবাই কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে হাজির রাইফেল ক্লাবের সামনে।


কিন্তু করোনাভাইরাসের প্রর্দুভাব ঠেকাতে সারা বিশ্বইতো এখন সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখার পক্ষে। তবে এত এত মানুষের ভীড় কেন এখানে? এমন প্রশ্ন মাথায় আসার সঙ্গে সঙ্গেই শুনলাম অল্প বয়সের এক মহিলা চেঁচিয়ে চেঁিচয়ে বলে উঠল ‘সকাল বেলা কইসে চাউল দিবো’ ‘অহন বাজে বেলা ১টা’ ‘কোন সময় দিবো চাউল’।

 

মূলত মহিলার মুখ থেকে এ ধরনের কথা শোনার পরেই বুঝতে পারলাম এরা সবাই ত্রাণের আশায় অপেক্ষা করছে। রাইফেল ক্লাব থেকে নাকি এদের খাদ্য সহায়তা দেয়ার কথা। তাই এদের এমন চেষ্টা। এছাড়া এ সময় কিছু ত্রানের জন্য সেনাবাহিনীর গাড়িও ঘেরাও করতে দেখা যায় এদের।


তবে দুঃখের বিষয় হচ্ছে ত্রাণের আশায় দিনভর অপেক্ষারত কিছু ব্যক্তি জানায়, শেষ পর্যন্ত শহরের প্রভাবশালীদের এই ক্লাব গরীব-দুঃখীদের সকল আশা-আকাঙ্খাকে শুধু হতাশাতেই পরিণত করছে। বিনিময়ে তাঁদের দেয়নি কিছুই। অন্যদিকে ক্লাব কর্তৃপক্ষ জানায়, রাইফেল ক্লাব থেকে ত্রাণ দেয়ার বিষয়ে কাউকে কোন আশ্বাস এখনো দেয়া হয়নি। হয়তো কারো ষড়যন্ত্রের কারণে এ ধরণের গুজব মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে। তাই তাঁরা এখানে ভীড় করছে।


ত্রাণ নিতে আসা রেশমা নামে এক তরুণী বলেন, ভাই ভোর বেলা খবর পাইসি এখানে চাউল আর তেল দিবো। তাই সকাল ৮টা থেকা এখানে অপেক্ষা করছি। কেউ বলে এখানে দিবো আবার কেউ কেউ বলে পঞ্চবটিতে গেলে দিবো। এখন আপনারাই বলেন কই যামু? ঘরে কোনো খাবার নাই। এখন বড়লোকেরা যদি আমাগো সাহায্য না করে কারা আমাগো সাহায্য করবো বলেন?


এদিকে নারায়ণগঞ্জ রাইফেল ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খালেদ হায়দার খান কাজল এ বিষয়ে যুগের চিন্তাকে বলেন, ‘আসলে গত ২৫ তারিখ থেকে আমাদের রাইফেল ক্লাব বন্ধ। দেশের করোনাভাইরাসের বর্তমান পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত এটা খোলার কোন সম্ভাবনাই নেই। তবে কেন ক্লাবের সামনে সকাল থেকে শত শত মানুষ জমায়েত হচ্ছে তা আমি বুঝতে পারছিনা। মনে হচ্ছে এটা কারো ষড়যন্ত্র।’
 
 

এই বিভাগের আরো খবর