রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

তুইসহ তোর দুই বাচ্চার লাশ বের করবো : সালমা ওসমান লিপি

প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০১৮  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ একেএম শামীম ওসমানের সহধর্মীনী, নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান সালমা ওসমান লিপি বলেছেন, ২০০১ সনে ইলেকশনে ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় এসেছিল বিএনপি। সেদিন ঠিক রাত সাড়ে আটটার সময় আমার বাসার টেলিফোন বেজে উঠলো। 

আমাকে বলা হয়, আজকের রাতটা শুধু বাসায় থাক। পরের দিন তুইসহ তোর দুই বাচ্চার লাশ আমরা বের করবো। আপনাদের কাছে আমার প্রশ্ন ? সন্ত্রাসী কারা, সন্ত্রাস কি ? নির্বাচনে যদি ফেয়ার ইলেকশন হয় হার জিত হতেই পারে। সেজন্য বাড়ী ছাড়তে হবে ? দেশ ছাড়তে হবে ? আর না ছাড়লে লাশ হয়ে পড়ে থাকতে হবে ?

আমরা কিন্তু সর্বখানে সব জায়গায় বিএনপিকে নিয়ে কাজ করি। উনারা সাগ্রহে আসেন আমাদের সাথে কাজ করার জন্য। আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে একেএম শামীম ওসমানের পক্ষে নির্বাচনী পথসভা ও উঠান বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) বিকালে ফতুল্লা থানার কুতুবপুর ইউনিয়নের দেলপাড়া স্কুলের সম্মুখে কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান সালমা ওসমান লিপি।

সালমা ওসমান লিপি আরো বলেন, যখন আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকে বা আপনাদের সাংসদ শামীম ওসমান থাকেন আমার দেখা মতে তখন আমরা সকল ধরনের মানুষকে নিয়ে কাজ করি। সেই মানুষ ধানের শীষ করে, না নৌকা করে, না জাতীয় পার্টি করে আমরা ঐটা কিন্তু দেখিনা। 

আমরা মানুষকে নিয়ে কাজ করি এবং তার যে দায়িত্ব জনগনের প্রতি এবং আমাদের যে দায়িত্ব সরকার যা দেন জনগনকে আমানত হিসেবে এনে একই মঞ্চে দাড়িয়ে আমরা কাজ করি।

এছাড়াও তিনি বলেন, ৯৬’ থেকে ২০০১ সনের মধ্যে স্বাধীনতার পরে নারায়ণগঞ্জে কোন উন্নয়নের ছোয়া লাগে নাই। যতটুকুই উন্নয়ন হয়েছে এই প্রথমবার তখন কোন সাংসদ এই এলাকায় এত টাকার কাজ করেছিলেন। তাই আমরা আপনাদের কাছে মাথা উচুঁ করে আসতে পারি। 

এটাও বলতে পারি না যে, পাঁচ বছরে কিন্তু একবার আসি নাই। বার বার এসেছি। আমরা সকলে ভোট দেই শুধু মার্কাকে নয়, আমরা ভোট দেই একটা মানুষকে। যে মানুষটা মার্কাটা নিয়ে দাড়ায় সে কি কাজ করতে পেরেছে। যার জন্য আপনি তাকে ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি বানিয়ে সংসদে পাঠাবেন। সে মানুষটা কি করতে পেরেছে। কি করেছে ? 

আপনাদের কাছে সে জন্যই বার বার আসা। ৯৬’ সালে যখন প্রথম আমরা ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট চেয়েছি। তখন নতুন ছিলাম, প্রথম ছিলাম। বলেছিলাম, আপনারা ওনাকে ভোট দিয়ে জয়য়ুক্ত করুন ওনি আপনাদেরকে কাজ করে দেখাবে। আল্লাহর সহয়তায় ওনি কাজ করে দেখিয়েছিলেন। ওনি আপনাদের নিয়ে অনেক স্বপ্ন দেখেন। আপনাদের কাছে আমি দোয়া চাইছি শামীম ওসমানের জন্য।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক শাহ নিজাম, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সম্পাদিকা প্রফেসর শিরিন বেগম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির, আওয়ামীলীগ নেতা জাহাঙ্গির আলম, কুতুবপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মানিক চান, ছাত্রলীগ নেতা রাসেল প্রমুখ।
 

এই বিভাগের আরো খবর