বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

টাক মাথায় চুল গজানোর যন্ত্র

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : অল্প বয়সে চুল পড়ে টাক হয়ে যাওয়া নিয়ে অনেকেই দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। এবার টাক সমস্যার প্রযুক্তিগত সমাধান আনছেন গবেষকেরা। এক ধরনের টুপির মতো বৈদ্যুতিক যন্ত্র মাথায় পরলে চুল গজাবে। সম্প্রতি এ যন্ত্র ইঁদুরের ওপর পরীক্ষা করে সফল হয়েছেন বলে জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকেরা।


উইসকনসিন-ম্যাডিসন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা বলছেন, ভবিষ্যতে টাক পড়া ঠেকানোর জন্য টুপি পরার মতো সহজ পদ্ধতি চলে আসবে। নিরাপদ ও কম খরচের চুল বৃদ্ধির উদ্দীপক প্রযুক্তি পরীক্ষায় সফলতা এসেছে।


তাঁদের তৈরি বিশেষ যন্ত্র মানুষের দৈনন্দিন নড়াচড়া থেকে শক্তি সঞ্চয় করে তা কাজে লাগাবে বলে আলাদা ব্যাটারির প্রয়োজন পড়বে না। ‘এসিএস ন্যানো’ সাময়িকীতে প্রকাশিত নিবন্ধে বলা হয়েছে, মৃদু, কম ফ্রিকোয়েন্সির বৈদ্যুতিক তরঙ্গ চুলের উৎপাদনকে পুনরায় সক্রিয় করতে সুপ্ত ফলিকগুলোকে উদ্দীপ্ত করবে।


এ বিষয়ে গবেষক সুডং ওয়াং বলেন, টাক মাথায় পুনরায় চুল গজানোর জন্য একটি ব্যবহারিক সমাধান হতে পারে এটি। নতুন চুল গজানোর পরিবর্তে চুল গজানোর সিস্টেমটিকে উদ্দীপ্ত করে এটি।


যাঁদের চুল ঝরতে শুরু করে টাক পড়ার প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে, তাঁদের জন্য এটি ভালো কাজ করবে। যন্ত্রটির আকার ছোট হওয়ায় বেসবল খেলার টুপির মতো যেকোনো টুপির নিচে বসানো যাবে।


গবেষক ওয়াং দাবি করেছেন, তাঁদের এ গবেষণার আগে কম খরচে চুল গজানোর কার্যকর প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা হয়নি। এতে যেহেতু খুব কম শক্তির বৈদ্যুতিক তরঙ্গ ব্যবহার করা হয়, তাই এটি নিরাপদ। এতে কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।


গবেষকেরা বলেন, এ যন্ত্র ব্যবহারে চুল গজানোর জন্য ওষুধ খাওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। চুল গজানোর জন্য ওষুধ খেলে নানা শারীরিক সমস্যায় ভুগতে হয়। তবে কবে নাগাদ এ যন্ত্র বাজারে আসবে, তা এখনো প্রকাশ করেননি গবেষকেরা। 
 

এই বিভাগের আরো খবর