শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৯ ১৪২৬   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

চিত্রনায়ক ছাত্তারের পাশে ‘নারায়ণগঞ্জ আর্টিস্ট ফাউন্ডেশন’

প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০১৯  

যুগের চিন্তা ২৪ : ৮০’র দশকের সুপার স্টার চিত্রনায়ক সাত্তার দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। খবর পেয়ে তাকে দেখতে ছুটে যান সকল শাখার শিল্পীদের নিয়ে গঠিত সদ্য আত্মপ্রকাশ করা সংগঠন ‘নারায়ণগঞ্জ আর্টিস্ট ফাউন্ডেশন (নাফ)’ এর একঝাঁক শিল্পী।


নাফ এর প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক বিশিষ্ট কণ্ঠশিল্পী, সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক জি.এম. রহমান রনির নেতৃত্বে মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) বিকেলে নারায়ণগঞ্জের গোগনগরে অবস্থিত তার জীর্ণশীর্ণ বাড়িতে।


একসাথে এত শিল্পীদের উপস্থিতি দেখে আবেগে আপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলেন এক সময়ের সুপার ডুপার অসংখ্য বাংলা চলচ্চিত্রে দুর্দান্ত অভিনয় করা এ নায়ক। এসময় শিল্পীরা তাকে শান্তনা দেন এবং তার সাথে বিভিন্ন স্মৃতিচারণ করেন।


উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট চিত্র পরিচালক ও সাংবাদিক শাহজাহান শামীম, কন্ঠশিল্পী অ্যাড. সীমা সিদ্দিকী, চলচ্চিত্র অভিনেতা মাসুদ রানা মিন্টু, নৃত্যশিল্পী ও প্রশিক্ষক সামিরা সিদ্দিকী, সাংবাদিক ও অভিনেত্রী সোনিয়া দেওয়ান প্রীতি, সাপ্তাহিক আলোর তরী পত্রিকার সম্পাদক মিকাইল ইসলাম রাজ, নীলা আহমেদ নিশি, মাহাবুবুর রহমান, কন্ঠশিল্পী আজমল হোসেন বাবু প্রমুখ।


অচল দুটি পা নিয়ে দিন-রাত বিছানায় শুয়ে থেকে কাটছে এই গুণি শিল্পীর জীবন। একটু পর পর শিশুদের মত উপস্থিত শিল্পীদের নাম ধরে কেঁদে উঠতে দেখা গেছে তাকে। এ সময় নাফ এর পক্ষ থেকে তার হাতে সামান্য অনুদান তুলে দিয়ে চিত্রনায়ক ছাত্তার ও তার স্ত্রীকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন।


উল্লেখ্য, ৮০’ র দশকে ইবনে মিজানের পরিচালনায় রূপকথা ভিত্তিক ‘পাতাল বিজয়'’ সিনেমায় অভিনয়ের মধ্যদিয়ে চলচ্চিত্র জগতে সূচনা হয় রোমান্টিক এ নায়কের। ছবিটি ব্যবসাসফল হওয়ার পর আর তাকে পিছু ফিরে তাকাতে হয়নি। 


এরপর একে একে পোশাকি সিনেমার শক্তিমান অভিনেতা আব্দুস সাত্তার অভিনয় করেন- রঙ্গীন রাখাল বন্ধু, রঙ্গীন রূপবান, রঙ্গীন সাত ভাই চাম্পা, আলো মতি প্রেম কুমার, মধুমালা মদন কুমার, সাগরকন্যা, শীষমহল, ঝড় তুফান, ঘরভাঙ্গা সংসার, জেলের মেয়ে রোশনীসহ অসংখ্য ব্যবসা সফল চলচ্চিত্রে।


সেই সময় চিত্রনায়িকা শাবানা থেকে শুরু করে অলিভিয়া, রোজিনা, অঞ্জু, জিনাত, কবিতা, রানিসহ অনেক সুপার হিট চিত্রনায়িকার সাথে বেশ দাপুটে অভিনয় করে দর্শক হৃদয়ে সাড়া ফেলেছিলেন ছাত্তার।


 প্রায় বছর ১৫ আগে চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চনের সাথে কোনো এক চলচ্চিত্রের শুটিং এ গিয়ে নামাজের জন্য ওজু করার সময় প্রথম স্ট্রোক করেন তিনি। এরপর আরও একবার স্ট্রোকসহ অসংখ্য শারীরিক জটিলতা ধীরে ধীরে দানা বাঁধে তার শরীরে। 


এভাবে আজ তিনি অচল প্রায় শরীর নিয়ে সয্যাশায়ী। টাকার অভাবে যেখানে তিন বেলা পেটভরে খাওয়াই মুশকিল সেখানে তার চিকিৎসার টাকা যোগানো স্ত্রীর জন্য হয়ে পড়েছে অসম্ভব। তাই তার জন্য 'নাফ' এর শিল্পীরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেছেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর