শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

গরম পানিতে গোসল, যাদের জন্য বিপজ্জনক! 

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : শীতে ঠাণ্ডার ভয়ে অনেকেই নিয়মিত গোসল করেন না! আবার গোসল করলেও গরম পানি নিশ্চয়ই ব্যবহার করেন! অনেকেই ভাবেন, গোসল না করার চেয়ে গরম পানিতে গোসল করাই ভালো।

 

তবে প্রতিদিন গরম পানিতে গোসল করাটা কি স্বাস্থ্যের জন্য ভালো? আসুন এ বিষয়ে জেনে নেয়া যাক- 

 

শুষ্ক আবহাওয়ায় ত্বকের বিশেষ যতেœর প্রয়োজন। এসময় বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ খুব কম থাকায় আমাদের ত্বকও শুষ্ক হয়ে যায়। শীতকালে বাতাসের অতিরিক্ত শুষ্কতার প্রভাবে ত্বক খুবই রুক্ষ্ম, শুষ্ক আর নিষ্প্রাণ হয়ে যায়।

 

ঠাণ্ডার প্রকোপ থেকে বাঁচতে এই সময় অনেকেই নিয়মিত গরম পানিতে গোসল করেন। বস্টন ইউনিভার্সিটির গবেষকদের মতে, শুষ্ক আবহাওয়ায় নিয়মিত গরম পানিতে গোসল করার ফলে ত্বক তার আর্দ্রতা দ্রুত হারিয়ে ফেলে। 

 

গরম পানিতে গোসল করা কতটা স্বাস্থ্যকর তা কিন্তু বিবেচনা করছি না। আসলে বয়স, ঋতু, অভ্যাস, রোগ এমন বেশ কিছু বিষয়ের ওপর নির্ভর করে গোসলের জন্য ঠাণ্ডা বা গরম পানি বেছে নিতে হবে।

 

# আয়ুর্বেদে বলা হয়েছে, গোসলের সময় শরীরে গরম পানি ব্যবহার করলেও মাথায় ঠাণ্ডা পানি ব্যবহার করতে হবে। কারণ গরম পানি আমাদের চুল ও চোখের জন্য ক্ষতিকর।

# শারীরিক ধরণের ওপর নির্ভর করে আপনি গোসলে ঠাণ্ডা না গরম পানি ব্যবহার করবেন। যেমন- আপনি যদি সুস্থ আর সুঠাম দেহের হন তবে ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করুন। না হলে হালকা গরম পানিই ঠিক আছে।

 

# লিভারে সমস্যা, বদহজম, হাত-পা ও শরীর জ্বালা করলে ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করুন।

# এলার্জি, কাশি, ঠাণ্ডা, পায়ের ব্যথা, সাইনাস, বাত এ ধরণের রোগ থাকলে গরম পানিতে গোসল করুন।

# শিশু ও বৃদ্ধদের জন্য গরম পানি ভালো।

 

# ছাত্র ছাত্রীরা যারা পড়াশোনায় বেশি সময় ব্যস্ত থাকেন এবং পর্যাপ্ত ঘুমাতে পারেন না তারা ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করলেই বেশি উপকার পাবেন।

# সকালে ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করা শরীরের জন্য ভালো। তবে রাতে বাড়ি ফিরে সারাদিনের ক্লান্তি দূর করতে গরম পানি বেশি উপকারী।

 

# নিয়মিত ব্যায়াম করার পর গরম পানিতে গোসল করতে পারেন।

# নিয়মিত শরীরে তেল ম্যাসেজ করে আধা ঘণ্টা পর গোসল করার অভ্যাস করুন।

# ভাল ত্বক এবং স্বাস্থ্যের জন্য গোসলের পানিতে কয়েকটি নিম পাতা দিয়ে রাখুন।

 

শীতকালে গরম পানিতে গোসল করলে খেয়াল রাখতে হবে পানি অতিরিক্ত গরম হবে না। অবশ্যই সহনীয় পর্যায়ে আরামদায়ক উষ্ণ পানিতে গোসল সারতে হবে।

এই বিভাগের আরো খবর