বৃহস্পতিবার   ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৮ ১৪২৬   ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

এবারের বইমেলায় লিজা কামরুন্নাহারের প্রথম উপন্যাস ‘সরলা’

প্রকাশিত: ২ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : জীবনের সব অঙ্ক হিসেবের খাতায় মেলানো যায় না। একটি জীবন অনেক স্বপ্ন নিয়ে নিজের পৃথিবীকে সাজাতে চায়, মুহূর্তের বুনো হাওয়া আঘাতে তা ভেঙে তছনছ হয়ে যায়। আর দহনক্রিয়া সইতে হয় পুরুষশাসিত সমাজে অধিকাংশ ক্ষেত্রে নারীদের।

 

স্বপ্নভঙ্গের বেদনা নিয়ে আকুবিলীন গহন সমুদ্রে হাবুডুবু খেতে হয় তাদের। সেই যন্ত্রণা কখনো কখনো জীবনকে ভস্মীভূত করে। যতবার তারা উঠে দাঁড়াতে চায়, পেছন থেকে তাদের টেনে রাখতে চায় এই পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র।


কামরুন্নাহার লিজার উপন্যাসে ‘সরলা’র মূল চরিত্র সরলা। অনুসঙ্গী চরিত্র প্রতীক। পারস্পরিক সম্পর্কের বন্ধনে সে আবদ্ধ হয়েছিলো শুধু দেহজ কামনায় নিজেকে সিক্ত করতে। সরলাকে সে বোঝেনি, বুঝতেও চায়নি। মানসিক যন্ত্রণার কষাঘাতে জর্জরিত জীবনকে সরলা আত্মমর্যাদায় অভিষিক্ত করতে চেয়েছ,কিন্তু পেরেছি কি? তারই জীবন ভাষ্য লিজার উপন্যাস ‘সরলা’। 

 

কামরুন্নাহার লিজার উপন্যাস ‘সরলা’ প্রসঙ্গে এমনটাই মন্তব্য করেছেন একুশে পদকপ্রাপ্ত বাংলাদেশি কবি ও ঔপন্যাসিক অসীম সাহা। 
এবার একুশে বইমেলায়  প্রকাশিত হয়েছে কবি, সাংবাদিক লিজা কামরুন্নাহারের প্রথম উপন্যাস ‘সরলা’। বইটি প্রকাশ করেছে আগন্তুক প্রকাশনী। প্রচ্ছদ করেছেন জিয়াউর রহমান জয়। বইটি পাওয়া যাবে বইমেলার ৬৯৯ নং স্টলে। ৫৬ পৃষ্ঠার বইটির দাম ১৫০ টাকা।  

 

১৯৭৫ সালে ১৬ মে নারায়ণগঞ্জ জেলার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের জন্মগ্রহণ করেন লিজা কামরুন্নাহার । তাঁর পিতা মরহুম কাইয়ুম মাহ্তাব, মাতা রিজিয়া কাইয়ুম। জীবন সঙ্গী শামীম আল মামুন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি দুই ছেলে সন্তানের জননী। বড় ছেলে যোহেব আহনাফ তীব্র এবং ছোট আবরার আহনাফ তাহসিন। 


পেশাগত জীবনে তিনি সাংবাদিকতা, শিক্ষকতা ও লেখালেখি নিয়ে ব্যস্ত। দক্ষ সংগঠক হিসেবেও  তিনি সুপরিচিত। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ১৯৯৮ সালে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে  স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেছেন লিজা কামরুন্নাহার। তার প্রথম কাব্যগ্রন্থ ‘অন্তর হ’তে অহরি বচন’ এবং সরলা তাঁর প্রথম উপন্যাস।


জীবনের প্রথম উপন্যাসের বই প্রকাশ করতে পেরে উচ্ছ্বসিত লিজা কামরুন্নাহার। বই প্রসঙ্গে তিনি জানান, মূলত আধুনিক যুগে নারী ঘরে-বাইরে সমানতালে সকল প্রতিবন্ধকতাকে অতিক্রম করেছে। নারী আজ শিল্পী, শিল্পী তো সুনিপুণ কর্মের নিয়ামক। শিল্পের মুখ্য শর্ত হচ্ছে সারল্য। সরলা তেমনি একজন শিল্পী। শিল্পে যেমন কোনো ভনিতা বা কৃত্রিমতা থাকে না। সরলা চরিত্রেও সেই সারল্য প্রকাশ পেয়েছে।