শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

আগে দেশের স্বার্থ, পরে দলের স্বার্থ : চরমোনাই পীর ফয়জুল করিম

প্রকাশিত: ১৩ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন বাংলাদেশ’র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম বলেছেন, আজকে বাংলাদেশের মুসলমানদের অবস্থা খুব ভয়াবহ। আজকে মুসলিম জাতি নির্যাতীত। গোটা কাফের জাতি মুসলিমদের ধ্বংস করতে ঐক্য হয়েছেন। 


তাঁরা বিভিন্ন দিকে বিচ্ছিন্ন থাকলেও মুসলিম নিধনে তাঁরা একমত। তাই মুসলিম হিসেবে অবশ্যই আমাদের সচেতন থাকতে হবে। এবং যে কোন বিষয়ই আগে দেশের স্বার্থ দেখবো এরপর দলের স্বার্থ দেখবো। যে দেশের পক্ষ্যে আমি তার পক্ষে, আর যে দেশের পক্ষে নয় আমি তার পক্ষে নই। 


রোববার (১৩ অক্টোবর) নগরির হীরা কমিউনিটি সেন্টারে নারায়ণগঞ্জ’র বিভিন্ন ওয়ার্ড প্রতিনিধিদের সম্মেলন সফল করার লক্ষ্যে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে তিনি এ কথা বলেন। 


তিনি বলেন, যেখানে ছাত্ররা কাউকে মেরে ফেলে অস্ত্রবাজি করে, টেন্ডার বাজিকরে ও মদপান করে তাদের সন্ত্রাসী বলা হয়না। কিন্তু যেই মাদ্রাসা মসজিদগুলোতে ছেলেরা কোরআন পড়ে আল্লাহর যিকির করে তাদেকের চিহ্নিত করে সন্ত্রাসী বলা হয়। সব জায়গায় দালালি। গোটা দেশ দালালে ভরে গেছে। কেউ দেশের জন্য কথা বলতে চায়না ক্ষমতায় থাকার জন্য। কেউ ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য। 


তিনি আরো বলেন, ভারত আমাদের প্রতিবেশী দেশ আমাদের বন্ধুদেশ। আমাদের চেয়ে অনেক বড়দেশ তাই তাঁর মনটাও বড় হওয়ার দরকার ছিলো। কিন্তু তাঁর আচরনটা কেমন হয়? তা আমরা দেখছি। তিস্তার সমস্যা আজ পর্যন্ত সমাধান হয়নি। ফারাকা বাঁধ আজ পর্যন্ত তুলে দেয়নি অথচ ফেনির পানি তাঁদের দিতে হবে। 


গত কয়েকদিন আগে আমাদের দেশের সীমান্ত এলাকা থেকে আমাদের তিনজন র‌্যাব সদস্যকে আটক করে নিয়ে যায়, ভারতীয় (বিএসএফ) এরপর তাঁদের ভারতে নিয়ে নানা ভাবে লাঞ্চিত করা হয়। কিন্তু এর কিছুদিন আগে বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে দেখেছি বাংলাদেশের সাগরে একজন ভারতীয় জেলেকে ভাসতে দেখে আমাদের নাবিকরা তাঁকে উদ্ধার করে কত যতœ সহকারে ভারতের কাছে হস্তান্তর করলো। আসলে এটাই আমাদের পরিচয়। এটাই আমাদের ব্যবহার। 


এ সময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, নারায়ণগঞ্জ মহানগর ইসলামী আন্দোলনের সভাপতি মাসুম বিল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদসহ বিভিন্ন ওয়ার্ডেও নেতাকর্মীরা।  

এই বিভাগের আরো খবর