শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৯ ১৪২৬   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর লক্ষ্যে ছেলেধরার গুজব: এসপি হারুন/ভিডিও

প্রকাশিত: ২১ জুলাই ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ বলেছেন, পদ্মা সেতু নির্মাণে মাথা লাগবে একটি কুচক্রী মহল এমন গুজব ছড়ানো পর দেশের বিভিন্ন স্থানে কয়েকজন  মর্মান্তিকভাবে প্রাণ হারিয়েছে। 


যা অনাকাঙ্খিত। গুজবে কেউ কান দিবেন না। আইন শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর লক্ষ্যে ‘ছেলেধরা’ গুজব ছড়ানো হচ্ছে। যারা গুজব ছড়িয়ে আইন গুজব ছড়িয়ে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর চেষ্টা করেছে।


বর্তমান সময়ে ছেলে- মেয়ে ধরা সন্দেহে কিংবা গলা কাটা সন্দেহে গনপিটুনি দিয়ে নিরীহ লোকজনদেরকে মারা হচ্ছে 
সোমবার (২১ জুলাই) দুপুরে সাড়ে ১২ টার দিকে চাষাড়া শহীদ মিনারে সাংবাদিকদের সাথে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ সকল কথা বলেন। 


‘গুজবে কান না দেওয়ার জন্য নারায়ণগঞ্জবাসীকে অনুরোধ করে পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ বলেন, ছেলেধরা সন্দেহে গনপিটুনী একটি ফৌজদারী অপরাধ। আইন নিজের হতে তুলে নিবেন না। গনপিটুনীর ঘটনায় যারা জড়িত তদন্ত করে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। 


দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরী করা রাষ্ট্রবিরোধী কাজের শামিল। সুতরাং কেউ অপরাধ করে পার পাবে না। তাই আইন নিজের হাতে তুলে নিবেন না। দেশকে অস্থিতিশীল করার জন্য একটি চক্র এ ধরণের গুজব ছড়াচ্ছে। 


নারায়ণগঞ্জ এর সকল থানার ওসি’দের কে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে মাইকিং করার জন্য (ইতোমধ্যে মাইকিং এর কাযক্রম চলছে)। এলাকার জনপ্রতিনিধি, চেয়ারম্যান, কমিশনার, কাউন্সিলর মেম্বারসহ স্কুল কলেজ, মাদ্রাসার শিক্ষকদের সহিত এ বিষয়ে আলোচনা করা নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।


এ সময় তিনি ফুটপাত হকারমুক্ত থাকবে ঘোষনা করে বলেন, ফুটপাতে হকার বসতে দেয়া দেয়া হবে না। মীর জুমলা সড়ক সাধারণ মানুষের জন্য রাস্তা খুলে দেওয়া হয়েছে। আগে অবৈধ দখলদাররা এই রাস্তা দখল করে রাখত। 


আমরা চাষাড়ার আশেপাশে ও বঙ্গবন্ধু রোডে হকার মুক্ত ফুটপাত উপহার দিয়েছি। সাধারণ মানুষ তাদের ছেলে-মেয়ে নিয়ে চলাফেরা করতে পারছে। আমরা ভূমিদস্যু, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদ, মাদক নিয়ে কাজ করছি এবং এই ধারা অব্যাহত থাকবে।


এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্বিক) মনিরুল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আব্দুল্লাহ আল মামুন, সহকারী পুলিশ সুপার (ট্রাফিক) সালেহউদ্দিন আহমেদ, ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন, সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ইসলাম, জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের পরিদর্শক এনামুল হক, জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার কর্মকর্তা (ডিআইও-২) মো. সাজ্জাদ রোমন প্রমুখ।
 

এই বিভাগের আরো খবর