আল-জাজিরার প্রতিবেদন সকল অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে সরানোর নির্দেশ

প্রকাশিত: ০২:৩৪, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আপডেট: ১৮:৫৭, ৮ এপ্রিল ২০২১

আল-জাজিরার প্রতিবেদন সকল অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে সরানোর নির্দেশ

ছবি: সংগৃহিত

বাংলাদেশে কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-জাজিরায় ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার্স মেন’ শিরোনামে প্রচারিত ডকুমেন্টারি সকল অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে অবিলম্বে সড়াতে (রিমুভ) হাইকোর্ট আজ নির্দেশ দিয়েছে।


বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মো. কামরুল হোসেন মোল্লা সমন্বয়ে গঠিত একটি ভার্চুয়াল হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ আজ এ আদেশ দেন।

বিটিআরসির আইনজীবী খন্দকার রেজা-ই রাকিব বলেন, এ সংক্রান্ত আনা রিট নিস্পত্তি করে আদালত আল-জাজিরায় ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার্স মেন’ শিরোনামে প্রচারিত ডকুমেন্টারি সকল অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে অবিলম্বে সড়াতে (রিমুভ) বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে। অবিলম্বে এ আদেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে। প্রয়োজন হলে এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট অনলাইন প্ল্যাটফর্ম কতৃপক্ষের সাথে বিটিআরসিকে যোগাযোগ করে পদক্ষেপ নিতে হবে।

এর আগে গত সোমবার শুনানিতে ছয় এমিকাস কিউরির মতামত নিয়েছে আদালত। এই রিটে গত ১০ ফেব্রুয়ারি ৬ জন আইনজীবীকে এমিকাস কিউরি নিয়োগ দেয় হাইকোর্ট।

বাংলাদেশে কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-জাজিরার সম্প্রচার বন্ধে আনা রিটের শুনানিতে মতামত দিয়েছেন ছয় এমিকাস কিউরি সাবেক এটর্নি জেনারেল সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিষ্টার কামাল-উল আলম, সাবেক এটর্নি জেনারেল ফিদা এম কামাল, আব্দুল মতিন খসরু, আইনজীবী প্রবীর নিয়োগী ও ড. শাহদীন মালিক।

এমিকাস কিউরিগণ এই রিট দায়েরের যৌক্তিকতা, রিটকারীর সংক্ষুব্ধতা, বিটিআরসির এখতিয়ার, এ সংক্রান্ত বিভিন্ন আইন, রেফারেন্স, রাষ্ট্রের নিরাপত্তা বিষয়ে নিজ নিজ মতামত তুলে ধরেন। এমিকাস কিউরিগণ তাদের লিখিত বক্তব্যও আদালতে পেশ করেন।

আজ শুনানি করেন এটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন। রাষ্ট্রপক্ষে আরও ছিলেন ডেপুটি এটর্নি জেনারেল নওরোজ মো. রাসেল চৌধুরী এবং বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খন্দকার রেজা-ই রাকিব।

‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টার্স মেন’ শিরোনামে ডকুমেন্টারি প্রচারের প্রেক্ষাপটে কাতারভিত্তিক টিভি চ্যানেল আল-জাজিরার সম্প্রচার বন্ধ ও এ সংক্রান্ত ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে অপসারণের নির্দেশনা চেয়ে রিটটি করা হয়েছে। 

গত ৮ ফেব্রুয়ারি রিটটি দায়ের করেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী মো. এনামুল কবির ইমন।
রিটকারী আইনজীবী মো. এনামুল কবির ইমন বলেন, রিটে বাংলাদেশে আল-জাজিরার সম্প্রচার বন্ধের নির্দেশনা চাওয়া হয়। পাশাপাশি ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ নামে সম্প্রচারিত প্রতিবেদনটি ইউটিউব, ফেসবুক ও টুইটার থেকে অপসারণের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। রিটে ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, তথ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, পুলিশের আইজিসহ সংশ্লিষ্টদেরকে বিবাদী (রেসপনডেন্ট) করা হয়।

রিটকারি বলেন, আদালত আজ ওই ডকুমেন্টারিটি সকল অনলাইন প্ল্যাটফর্ম থেকে অবিলম্বে সড়াতে আদেশ দিয়েছে। তবে আল-জাজিরা বাংলাদেশে সম্প্রচার বন্ধে কোন আদেশ দেয়া হয়নি।

আল-জাজিরায় ১ ফেব্রুয়ারি রাতে ‘অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন’ শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রচার করা হয়। ইতোমধ্যে প্রতিবেদনটিকে মিথ্যা ও মানহানিকর আখ্যা দিয়ে বিবৃতি দিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এদিকে সেনা সদরের তরফ থেকে আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) পাঠানো এক বিবৃতিতে ওই প্রতিবেদনকে বর্ণনা করা হয় ‘সাজানো এবং দূরভিসন্ধিমূলক’ ও ‘মিথ্যা প্রতিবেদন’ হিসেবে।