রিকশা গার্ল: যুক্তরাষ্ট্র থেকে সুখস্মৃতি, জার্মানি দিলো সর্বোচ্চ

প্রকাশিত: ০১:১১, ১৮ অক্টোবর ২০২১

রিকশা গার্ল: যুক্তরাষ্ট্র থেকে সুখস্মৃতি, জার্মানি দিলো সর্বোচ্চ

রিকশা গার্ল’ নিয়ে সাত দিনের সফর শেষে ১৫ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্র থেকে ঢাকায় ফিরলেন অমিতাভ রেজা। মূলত এই ট্যুরের মাধ্যমে ছবিটির উত্তর আমেরিকা ভ্রমণ শুরু হলো। এ বছরের মিল ভ্যালি চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হয় ছবিটি। 

দেশে ফিরেই জার্মানি থেকে সুখবর এলো অমিতাভের ঘরে। দেশটিতে অনুষ্ঠিত ২৬তম ‘শ্লিঙ্গেল আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১’ থেকে সর্বোচ্চ পদক ‘এসএলএম টপ অ্যাওয়ার্ড’ জিতেছে ‘রিকশা গার্ল’। ১৬ অক্টোবর রাত ১০টায় এটি ঘোষিত হয়।

এই আন্তর্জাতিক উৎসবটি ১৯৯৬ সাল থেকে শিশু-কিশোরদের জন্য নির্মিত চলচ্চিত্র থেকে বাছাই করে বিভিন্ন বিভাগে মনোনয়ন দিয়ে থাকে। এবার ৭৭টি ফিচার ফিল্ম এবং ১১৬টিরও বেশি শর্ট ফিল্ম বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে একে অপরের বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। মনোনীত চলচ্চিত্রগুলোর মধ্য থেকে পেশাদার বিচারকমণ্ডলী কর্তৃক নির্বাচিত আন্তর্জাতিক পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগে বাংলাদেশের ‘রিকশা গার্ল’ সর্বোচ্চ পুরস্কার পায়। খবরটি নিশ্চিত করেছেন নির্মাতা অমিতাভ রেজা ও উৎসব কর্তৃপক্ষ।

অমিতাভ বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র থেকে সুখ স্মৃতি নিয়ে ঢাকায় নেমেই পেলাম আরেক উৎসব থেকে সর্বোচ্চ পুরস্কার প্রাপ্তির খবর। এটা যে কেমন আনন্দের বিষয়, সেটি ভাষায় প্রকাশ করা সম্ভব নয়। এসব প্রাপ্তি আরও সামনে যাওয়ার বিষয়ে উৎসাহ যোগায়। প্রাণ পাই।’

এদিকে ৯ অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের সানফ্রানসিসকোতে অনুষ্ঠিত মিল ভ্যালি উৎসবে প্রথম দেখানো হয় ছবিটি। প্রথম প্রদর্শনীতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৩৫০ জন দর্শক ও চলচ্চিত্র সমালোচক উপস্থিত ছিলেন। একই উৎসবের দ্বিতীয় প্রদর্শনীতে ২০০ এবং অনলাইনে একটি প্রদর্শনীতে দর্শক ছিলেন ৫০০ জন। উৎসবটির পর্দা নামছে আজ (১৭ অক্টোবর)। তবে তার আগেই ঢাকায় ফিরেছেন অমিতাভ রেজা চৌধুরী।

এই উৎসবে অংশ নেওয়া প্রসঙ্গে অমিতাভ রেজা বলেন, ‘মিল ভ্যালি চলচ্চিত্র উৎসবে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে শুরু হলো আমাদের উত্তর আমেরিকা সফর। এই সফর থেকে আমি অনেক ভালোবাসা পেয়েছি। দারুণ এক অভিজ্ঞতা আমার জীবনে যোগ হয়েছে এই সফর থেকে।’

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত এই সিনেমায় নাইমার ভূমিকায় অভিনয় করেছেন বাংলাদেশি তরুণ অভিনয়শিল্পী নভেরা রহমান। নাইমার মায়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মোমেনা চৌধুরী। প্রযোজনায় এরিক জে অ্যাডামস। আরও অভিনয় করেছেন চম্পা, নরেশ ভূঁইয়া, অ্যালেন শুভ্র প্রমুখ।

এটি অমিতাভ রেজা চৌধুরীর দ্বিতীয় সিনেমা। প্রথমটি ছিলো সুপারহিট ‘আয়নাবাজি’।