সোমবার   ২৫ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১১ ১৪২৭   ০২ শাওয়াল ১৪৪১

ঝড় উপেক্ষা করে লাশ গোসল দিলেন রোজিনা মেম্বার

যুগের চিন্তা

প্রকাশিত : ০৬:৩৫ পিএম, ২১ মে ২০২০ বৃহস্পতিবার

প্রচন্ড ঝড়ের মধ্যে হঠাৎ করেই রাতে ফোন আসে এনায়েতনগর ইউপির সংরক্ষিত নারী সদস্য রোজিনা আক্তারের মোবাইলে। মোবাইলের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন একজন ক্যান্সার আক্রান্ত নারীর মৃত্যু হয়েছে।

 

তাকে গোসল করাতে হবে। সংবাদ পেয়ে ঝড়ের মধ্যেই মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে তিনি ফতুল্লা থানার সংলগ্ন মৃত নারীর বাড়িতে ছুটে গিয়েছেন। মৃতকে গোসল করিয়ে দাফন কাফনের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন তিনি। 


কয়েক বছর যাবৎ ফতুল্লার সাঈদ চেয়ারম্যানের বাড়ির সংলগ্ন একটি বাড়িতে একজন নারী ক্যান্সার রোগে ভুগছিলেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যার দিকে তার অবস্থার অবনতি ঘটে।

 

রাত সাড়ে ৯ টার দিকে ঐ নারীর মৃত্যু হয়। তাঁর মৃত্যুর পর তাকে গোসল করানোর জন্য মানুষ খুঁজে পাচ্ছিলেন না। নিহতের স্বজনরা যুগের চিন্তা পত্রিকায় সাংবাদিক ফরিদ আহম্মেদ বাধনকে বিষয়টি জানালেন।

 

তিনি এনায়েতনগর ইউপি মেম্বার রোজিনা আক্তারকে একজন মৃত নারীর গোসলের ব্যাপারে জানানোর পর পরই মঙ্গলবার রাতে রোজিনা আক্তার প্রচন্ড ঝড়ের মধ্যে ফতুল্লায় ছুটে  গিয়েছিলেন। 


এ ব্যাপারে মৃত নারীর মেয়ের স্বামী মনির হোসেন বলেন,করোনা পরিস্থিতিতে মৃত ব্যাক্তিকে গোসল করাতে অনেকেই রাজি হয় না। আমার শাশুড়ী ক্যান্সার আক্রান্ত ছিলেন। তাঁর গোসলের জন্য আমরা চিন্তায় ছিলাম।

 

তবে রাত সাড়ে ১২টার দিকে এনায়েতনগর ইউপি মেম্বার রোজিনা আক্তার আমার শাশুড়ীর মরদেহকে গোসল করানোর জন্য ছুটে এসেছেন। এখনো মানুষ মানুষের জন্য কাজ করে রোজিনা আপা সত্যিই এর জ্বলন্ত প্রমান।


এ ব্যাপারে এনায়েত নগর ইউপি মেম্বার রোজিনা আক্তার বলেন,করোনা পরিস্থিতিতে আমি ফেসবুকে ঘোষণা দিয়েছিলাম,যদি কোন নারী মৃত্যু বরণ করে তাহলে আমি তাকে গোসল করানোর জন্য প্রস্তুত রয়েছি। করোনা  আক্রান্ত এবং স্বাভাবিকভাবে মৃত্যু হওয়া নারীদের  আমার ইউনিয়ন ছাড়াও ইউনিয়নের বাইরে আমি গোসল করিয়েছি।

 

মঙ্গলবার রাতে একজন সাংবাদিক ভাইয়ের ফোন পেয়ে আমি মৃত নারীর বাড়িতে গিয়ে গোসল করিয়েছি। এটা কোন গর্বের বিষয় নয়। মানুষ মানুষের প্রয়োজনে এগিয়ে যাবে এটাই ব্রত হওয়া উচিত।