সোমবার   ২৫ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৭   ০২ শাওয়াল ১৪৪১

৬ মার্চের মধ্যে মহানগর আওয়ামী লীগের কমিটি

যুগের চিন্তা

প্রকাশিত : ০৩:৩১ এএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ সোমবার

যুগের চিন্তা রিপোর্ট : বিগত সাত বছরে নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের একটি ওয়ার্ড কমিটিও গঠিত হয়নি। এদিকে কেন্দ্রের নির্দেশ, আগামী ৬ মার্চের মধ্যে মহানগর কমিটি গঠন করতে হবে। সাত বছরে যে ওয়ার্ড কমিটি গঠিত হয়নি তা সাত দিনে গঠন কি করে সম্ভব? তাই নেতাকর্মীরা নিশ্চিত, মহানগরের উপর আবারও একটি এডহক কমিটি চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে।  

 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছে, শীঘ্রই কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হবে। কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগে আগামী ৬ মার্চের মধ্যে বিভিন্ন কমিটির সম্মেলন সম্পন্ন করার জন্য কেন্দ্রের লিখিত নির্দেশ রয়েছে। সে হিসেবে নারায়ণগঞ্জ মহানগর কমিটি গঠন করতে হবে উদ্দিষ্ট তারিখের আগে। তবে, নিয়ম মাফিক মহানগর কমিটি গঠনের আগে ওয়ার্ড কমিটি গঠনেরও আর সুযোগ নেই। সে হিসেবে গনতান্ত্রিকভাবে কাউন্সিল করে মহানগর কমিটি গঠনের সম্ভাবনাও কমে গেছে।

 

এদিকে, আওয়ামী লীগের বিভিন্ন নেতাকর্মীর সঙ্গে আলাপে জানা গেছে, আসন্ন মহানগর কমিটির সম্ভাব্য সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদে বেশ কয়েক জনের নাম শোনা যাচ্ছে। সভাপতি পদে বর্তমান সভাপতি আনোয়ার হোসেনের সঙ্গে বর্তমান সাধারন সম্পাদক এড. খোকন সাহা এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ উপ কমিটি সদস্য কামালউদ্দিন মৃধার নামও শোনা যাচ্ছে।

 

ওদিকে, সাধারন সম্পাদক পদে শোনা যাচ্ছে শাহ নিজাম, আহসান হাবিব, আহমেদ আলী রেজা উজ্জ্বল, জিএম আরাফাত ও জিএম আরমানের নাম। ওসমান শিবিরের প্রতিনিধি হিসেবে সভাপতি প্রার্থী খোকন সাহার সঙ্গে সাধারন সম্পাদক পদে জিএম আরাফাতের প্যানেল গড়ার কথা শোনা যাচ্ছে।


এ ব্যপারে আলাপকালে মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলেন, আগামী কমিটিতে আমি কোন পদে প্রার্থী হচ্ছিনা। তবে, আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা যদি মনে করেন এবং বলেন, মহানগরে আমাকে প্রয়োজন, তাহলেই আমি থাকবো।

 

কামাল মৃধা বলেন, ইনশাল্লাহ্ আমি সভাপতি প্রার্থী। আগামী শনিবারের মধ্যে আমি প্যানেল জমা দেব। আপনার প্যানেলে সাধারন সম্পাদক কে? এ প্রশ্নের জবাবে কামাল মৃধা বলেন, উজ্জ্বল বা আরমানের মধ্যে যে কেউ সেক্রেটারী প্রার্থী হতে পারেন। এ নিয়ে আমার কোন সমস্যা নেই।


রাজনৈতিক মহলের মতে, আগামী মহানগর কমিটির সভাপতি সেক্রেটারী যেই হোক না কেন এ কমিটি কোন ভাবেই গনতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় গঠনের আর সময় নেই। তাই ধরে নেয়া যেতে পারে, আবারও একটি এডহক মহানগর কমিটি হতে যাচ্ছে।