প্রথমবারের মতো গির্জার পরামর্শ পরিষদে নারী নিয়োগ দিয়ে প্রথা ভাঙলেন পোপ

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ০৩:২২, ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১

আপডেট: ০৭:২৫, ১ মার্চ ২০২১

প্রথমবারের মতো গির্জার পরামর্শ পরিষদে নারী নিয়োগ দিয়ে প্রথা ভাঙলেন পোপ

ছবি: সংগৃহিত

প্রথমবারের মতো গির্জার পরামর্শ পরিষদে (সিনড অব বিশপস) প্রথমবারের মতো এক নারীকে নিয়োগ দিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। এরমধ্য দিয়ে দীর্ঘদিনের ক্যাথলিক ঐতিহ্য ভাঙলেন খ্রিস্টানদের প্রধান এ ধর্মগুরু।

শনিবার আন্ডারসেক্রেটারি বা সহকারী সচিব পদে দুইজন নারীকে নিয়োগ দেওয়া হয় বলে বিবিসি জানিয়েছে। 

সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় ভোট দেওয়ার পাশাপাশি চার্চের বিতর্কিত কিছু বিষয়ে মতামত দেওয়ার অধিকার পাবেন তারা।  

বর্তমান বিশপ পরিষদে ২০১৯ সাল থেকে কনসালটেন্ট হিসেবে কাজ করে এসেছেন ফ্রান্সের ‘জাভিয়ে মিশনারি সিস্টার্স’ এর সদস্য ৫২ বছর বয়সী নাতালি বেকা।

তার পাশাপাশি বিশপ পরিষদে আন্ডারসেক্রেটারি পদে নিয়োগ পেয়েছেন স্পেনের নারী যাজক লুইস ম্যারিন দে সান মার্তিন।

সিনডের সেক্রেটারি জেনারেল কার্ডিনাল মারিও গ্রেচ বলেন, গির্জার সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় অধিক হারে নারীর অংশগ্রহণের ব্যাপারে পোপ যে ইচ্ছা পোষণ করেছিলেন, এ নিয়োগ তারই প্রতিফলন।

বিশপ পরিষদে (সিনড অব বিশপস) নারীরা এতদিন তদারককারী এবং কনসালটেন্ট হিসাবেই কাজ করে এসেছে। 

পরিষদ থেকে পোপের কাছে কোনো চূড়ান্ত নথি পাঠানোর ক্ষেত্রে তাতে ভোট দেওয়ার অধিকার ছিল কেবলমাত্র ‘সিনড ফাদারদের’ অর্থাৎ বিশেষভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত কিংবা নির্বাচিত পুরুষ প্রতিনিধিদের।

২০১৮ সালে বিশপ পরিষদের সম্মেলনে ১০ হাজার মানুষ নারীদের ভোটাধিকার চেয়ে একটি পিটিশনে সই করেছিল।