মঙ্গলবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪   ফাল্গুন ১৫ ১৪৩০

খালেদা জিয়ার কার্যালয়ে তল্লাশির প্রতিবাদে জেলা বিএনপি ও অংঙ্গ সংগঠনের বিক্ষোভ

প্রকাশিত: ২১ মে ২০১৭   আপডেট: ২১ মে ২০১৭

স্টাফ রির্পোটার (যুগের চিন্তা ২৪ ডটকম) : বেগম খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে পুলিশি তল্লাশী ও হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি ও অংঙ্গ সংগঠন। রোবাবর (২১ মে) সকাল ১১ টায় নারায়ণগঞ্জ প্রেসকøাবের সামনে এ বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। জেলা বিএনপির সভাপতি কাজি মনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, কেন্দ্রীয় ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক খসরু, জেলা বিএনপির সদস্য আতাউর রহমান আঙ্গুর, জেলা বিএপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন বারী, জেলা বিএনপির সহ-সাধারন সম্পাদক এম এ আকবর, জেলা বিএনপির যুগ্ন সাধারন সম্পাদক লৎফুর রহমান খোকা, জেলা বিএনপির সাংগঠনিক মাসকুল ইসলাম রাজীব, জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন, জেলা বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক উজ্জল হোসেন জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান রোজেল, নারায়ণগঞ্জ জেলা মহিলা দলের সভাপতি নুরনাহার, জেলা যুবদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রিপন, ফতুল্লা থানার  শ্রমিকদলের সভাপতি মন্টু মেম্বার, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্বাহী সদস্য মোঃ আব্দুল মান্নান, ফতুল্লা থানা বিএনপির যুব দলের বিপ্লবী নেতা মোঃ আনোয়ার হোসেনসহ আরো অনেকে। বিক্ষোভ সমাবেশে নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনিরুজ্জামান মনির বলেন, বিএনপি তিন তিনবার নির্বাচিত ভাবে ক্ষমতায় এসেছিল এমন একটি দলকে ক্ষমতাশীল রাজনৈতিক দল তাদের পেটুয়া পুলিশ বাহিনী দিয়ে তল্লাশির নামে যে হামলা চালিয়েছে আমরা তার তীব্র নিন্দা ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানাই। তিনি বলেন, আমরা ইচ্ছে করলে অনেক কিছু করতে পারতাম। কিন্তু দেশের ও দেশের জনগনের স্বার্থে শান্ত রয়েছি। আমি মুক্তিযোদ্ধে অংশ গ্রহন করেছি দেশের স্বার্থে গনতন্ত্রের স্বার্থে। কিন্তু আমাদের গণতন্ত্র আদায় করতে দেওয়া হয় নাই। স্বৈরাচারী শেখ হাসিনা তাদের পেটুয়া প্রশাসনিক বাহিনীর মাধ্যমে তল্লাশীর নামে হামলা, মামলা নির্যাতন চালিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার করছে। তিনি আরো বলেন, তারা ক্ষমতার জোড়ে বাগশাল কায়েম করেছে। আমরা তাদের বাগশাল প্রতিহত করার জন্য ঐক্যবদ্ধ ভাবে কাজ করবো। আমরা বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে সকল বিভেদ ভুলে গিয়ে ২০১৯ সালের নির্বাচনে অংশ গ্রহন করে জয়লাভ করবো। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ ২০১৭ সালের মধ্যে অনেক ঘটনা ঘটাবে তাই দেশের মানুষের মুক্তির স্বার্থে প্রয়োজন হলে নিজের জীবন উৎসর্গ করে মানুষের জন্য কাজ করবো। পুলিশের প্রতি আমার অনুরোধ আপনারা যেটা সঠিক সেটা করবেন। সাধারন মানুষকে হয়রানি করবেন না। দেশের ভিতর যেভাবে শান্তি আসে সেভাবে সবার সহযোগীতা করবেন। আমরা আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে আন্দোলন চালিয়ে যাবো।
এই বিভাগের আরো খবর