বিদেশে ‘রাষ্ট্রবিরোধী’ বক্তব্যদাতাদের পাসপোর্ট বাতিলের সিদ্ধান্ত

প্রকাশিত: ১৫:৫৬, ১২ জানুয়ারি ২০২২

বিদেশে ‘রাষ্ট্রবিরোধী’ বক্তব্যদাতাদের পাসপোর্ট বাতিলের সিদ্ধান্ত

বিদেশ থেকে ‘রাষ্ট্রবিরোধী’ বক্তব্যদাতাদের তালিকা করে পাসপোর্ট বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বুধবার (১২ জানুয়ারি) সচিবালয়ে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন কমিটির সভাপতি ও মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশে থেকে দেখা গেছে অনেকে এমন মিথ্যাচার করছে যেটা কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে সেটা বলতে পারে, কিন্তু রাষ্ট্রের বিরুদ্ধেও যেগুলো বলছে সেটা রাষ্ট্রদোহী। দুইটা জিনিস আমরা সবসময়ই প্রার্থক্য করি- একজন ব্যক্তি আমার বিরুদ্ধে বলতেই পারে। আরেকটা হল রাষ্ট্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়।’ তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রবিরোধী এসব কাজ যারা বিদেশে বসে করছে, তাদের যাতে পাসপোর্ট বাতিল করা হয় সেজন্য আমরা পরামর্শ দিয়েছি। তাদের তালিকা প্রস্তুত করা হোক, তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করে সেগুলো কারা করছে, কী কী করছে এবং কোনোটা রাষ্ট্রবিরোধী কাজ, সেগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে যারা সক্রিয়ভাবে, অব্যাহতভাবে এ কাজ করে যাচ্ছে, তাদের পাসপোর্ট বাতিলের জন্য উদ্যোগ নেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে এবং নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’ মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘তারা (রোহিঙ্গা) আমাদের দেশের নাগরিক নন। তাই আমাদের দেশের আইনানুযায়ী তাদের বিচার হবে না। তাই কীভাবে তাদের অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখা যায়, সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা আইনশঙ্খলা বাহিনী চালিয়ে যাবে, সেই নির্দেশনা তাদের দেওয়া হয়েছে।’ মোজাম্মেল হক জানান, যে কোনো সরকারি চাকরিতে নিয়োগের আগে ডোপ টেস্ট হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ভর্তির আগেও ডোপ টেস্ট করা হবে। ডোপ টেস্ট বাধ্যতামূলক করার জন্য দ্রুত একটি আইন করা হবে।