ভারতে সামরিক বহরে হামলার নেপথ্যে চীন?

প্রকাশিত: ২২:০৬, ১৪ নভেম্বর ২০২১

ভারতে সামরিক বহরে হামলার নেপথ্যে চীন?

ভারতের মণিপুরের মিয়ানমার সীমান্তবর্তী এলাকায় আসাম রাইফেলসের সামরিক বহরে হামলার নেপথ্যে হাত থাকতে পারে চীনের। এমন আশঙ্কার কথা জানিয়েছেন ভারতীয় বিশেষজ্ঞরা। এক প্রতিবেদনে হিন্দুস্তান টাইমস এ খবর জানিয়েছে।

শনিবার সীমান্তবর্তী চূড়াচাঁদপুর জেলায় চালানো ওই হামলায় আসাম রাইফেলসের কমান্ডিং অফিসার কর্নেল বিপ্লব ত্রিপাঠীসহ সাত জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে কর্নেল বিপ্লব ত্রিপাঠীর স্ত্রী ও তার ৮ বছর বয়সী সন্তানও রয়েছে।

এরইমধ্যে হামলার দায় স্বীকার করেছে পিএলএ মণিপুরের অধীনে থাকা রেভোলিউশনারি পিপলস ফ্রন্ট। যদিও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর নেপথ্যে বেইজিংয়ের মদত থাকতে পারে।

বিষয়টি নিয়ে হিন্দুস্তান টাইমসের সঙ্গে কথা বলেছেন ২০১৭ সালে অবসর নেওয়া ভারতীয় লেফটেন্যান্ট জেনারেল কনসাম হিমালয় সিং। তিনি বলেন, ‘এই বিদ্রোহী দলগুলো সাধারণত নারী ও শিশুদের লক্ষ্য করে হামলা চালায় না। তবে এই সর্বশেষ হামলাটি এমন এক সময়ে হলো, যখন বিদ্রোহীরা তাদের প্রাসঙ্গিকতা প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। বিগত বেশ কয়েক বছরে মণিপুরে সহিংস ঘটনা উল্লেখযোগ্যভাবে কমেও গেছে। এই ঘটনার নেপথ্যে চীনের যোগসাজশ থাকার বিষয়টি উড়িয়ে দেওয়া যায় না।’

জেনারেল হিমালয় সিংয়ের মতোই লেফটেন্যান্ট জেনারেল শোকিন চৌহানও (অবসরপ্রাপ্ত) হামলার নেপথ্যে চীনা প্রভাবের বিষয়টি উড়িয়ে দিচ্ছেন না। তিনি হিন্দুস্তান টাইমসকে বলেন, ‘মণিপুরের পিপলস লিবারেশন আর্মি চীনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখে বলে জানা যায়। চীনের সঙ্গে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি) বরাবর উত্তেজনা চলাকালে এই অঞ্চলে আরও বাহিনী মোতায়েন করতে ভারতকে বাধ্য করার জন্য এই আঘাত চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়ে থাকতে পারে।’