নাশকতার মামলায় জামায়াতের ২৮ নেতাকর্মী গ্রেফতার

প্রকাশিত: ২২:২৫, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১

নাশকতার মামলায় জামায়াতের ২৮ নেতাকর্মী গ্রেফতার

নাশকতার মামলায় নীলফামারীর ডোমারের তিনটি ইউনিয়নের জামায়াতের আমিরসহ ২৮ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই মামলার ৩০ জন চার্জশিটভুক্ত পলাতক আসামির বিরুদ্ধে আদালতের গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি ছিল। সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নীলফামারী জেলা ও দায়রা জজ রেজাউল করিম সরকারের আদালতে আসামিরা আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত ২৮ জনের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। ওই আদালতের পাবলিক প্রসিকিউর (পিপি) অ্যাডভোকেট অক্ষয় কুমার রায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, ৩০ জন আসামির মধ্যে জামায়াতকর্মী আশিকুর রহমান ও ইনছান আলীকে শারীরিক অসুস্থতার কারণে আদালত জামিন দেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০১৮ সালের ১২ সেপ্টেম্বর ডোমার উপজেলা সদর ইউনিয়ন, জোড়াবাড়ি ইউনিয়ন এবং পাঙ্গা মটকপুর ইউনিয়নের জামায়াতের আমির যথাক্রমে আব্দুল কুদ্দুস, লিয়াকত আলী ও আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমে নাশকতা করা হয়। ঘটনার দিন রাতেই সন্ত্রাসবিরোধী আইন ২০০৯ (সংশোধনী/২০১৩) ৬(২) ধারায় ডোমার থানার এসআই গোলাম মোস্তফা বাদী হয়ে নাম উল্লেখ করে ২২ জনসহ অজ্ঞাত ৭০-৮০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। ওই মামলার তদন্তে একই বছরের ৮ ডিসেম্বর আদালতে ৭৯ জনের নামে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। মামলায় ৩০ জন আসামি গ্রেফতার হয়ে ছয় মাস কারাবাসের পর আদালত কর্তৃক জামিন পান। উল্লেখ্য, পলাতক ৪৯ জন আসামির মধ্যে সোমবার ৩০ জন আত্মসমর্পণ করে আদালতের কাছে জামিন আবেদন করলে আদালত অসুস্থতাজনিত কারণে দুই জনকে জামিন ও বাকি ২৮ জনকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। এই মামলায় এখনও ২১ জন আসামি পলাতক রয়েছেন বলে জানান পিপি অ্যাডভোকেট অক্ষয় কুমার রায়।