ছেলেকে রক্ষা করে প্রাণ দিয়ে গেলেন বাবা

প্রকাশিত: ২২:০৩, ২৫ ডিসেম্বর ২০২১

ছেলেকে রক্ষা করে প্রাণ দিয়ে গেলেন বাবা

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নলিয়াগ্রাম রেল স্টেশনে টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে শিরু মোল্লা নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শিরু মোল্লা বালিয়াকান্দি উপজেলার জামালুপর ইউনিয়নের মৃত সামাদ মোল্লার ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, শিরু মোল্লা নলিয়াগ্রাম রেল স্টেশন এলাকায় দাঁড়িয়ে ছিলেন। ছেলে নাফিজ শেখ ট্রাক্টর মেরামতের জন্য আসবে সেই অপেক্ষা করছিলেন। সকালে কুয়াশা থাকার কারণে বেশিদূর দেখা যাচ্ছিল না। এ সময় সাবনিপাড়া গ্রাম থেকে জামালপুর বাজারের উদ্দেশে পাওয়ার ট্রাক্টর মেশিন মেরামত করতে আসছিলেন শিরু মোল্লার ছেলে নাফিজ শেখ। হঠাৎ শিরু মোল্লা দেখতে পান ভাটিয়াপাড়া থেকে রাজশাহীগামী টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেস নলিয়া রেল স্টেশন এলাকায় চলে এসেছে। একই সময় ছেলে নাফিজ ট্রাক্টর নিয়ে রেললাইন অতিক্রম করার চেষ্টা করছে। নিজে দ্রুত গিয়ে জমি চাষ করার ছোট পাওয়ার ট্রাক্টরের গতিরোধ করেন। ছেলেকে রক্ষা করলেও ট্রেন এসে শিরু মোল্লা ও ট্রাক্টরটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই প্রাণ হারান তিনি। দুমড়েমুচড়ে যায় কঠিন ধাতবের ট্রাক্টরটিও। জামালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম ফরিদ হোসেন বলেন, ‘ছেলের জন্য বাবার আত্মত্যাগের অনেক নজির রয়েছে। আমরা সবাই চিৎকার করছিলাম, ট্রেন আসছে, ট্রেন আসছে। কিন্তু তারা শুনতে পায়নি। কিন্তু বাবা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রাক্টরের গতিরোধ না করলে নাফিজ মারা যেত এটা নিশ্চিত।’ রাজবাড়ী রেলওয়ে পুলিশের পরিদর্শক মো. মাসুদ আলম জানান, সন্তানের জন্য বাবার জীবন উৎসর্গের এটি অনন্য দৃষ্টান্ত। রেল লাইন পারাপারের ক্ষেত্রে সবাইকে সচেতন হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।