শনিবার   ২৪ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৮ ১৪২৬   ২২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৬ কোটি টাকা পাওনা আদায়ের জন্য চেম্বার সভাপতি কাজলের মামলা

প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : পাওনা ৬ কোটি টাকা আদায়ের জন্য নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমাস এবং ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল বিল্লাল হোসেন নামে এক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন।  ২০১৮ সালের ২০ নভেম্বর নারায়ণগঞ্জ চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত ‘ক’ অঞ্চলে তিনি মামলাটি (সিআর মামলা নং-১৩৭৬/১৮) দায়ের করেন।

মামলার এজহারে বলা হয়, আসামী টানবাজার এলাকার মেসার্স ইমপ্রেসিভ টেক্সটাইল মিলস লিঃ এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিল্লাল হোসেন এবং মামলার বিবাদী খালেদ হায়দার খান কাজল উভয়ের মধ্যে সুসম্পর্ক রয়েছে। 

ব্যবসায়ী কাজের দরুন নগদ টাকার বিশেষ প্রয়োজন হলে বিল্লাল কাজলের কাছে টাকা নেওয়ার প্রস্তাব করে। কাজল এতে রাজি হয়ে ১০০ টাকার ৩টি নন-জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্পের মাধ্যমে লিখিত নিয়ে কয়েকজনকে স্বাক্ষী রেখে নগদ ৬ কোটি টাকা হাওলাত বাবদ বিল্লালকে দেয়। 

পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য ২০১৮ সালের ১ আগস্ট বিল্লাল এক্সিম ব্যাংক নারায়ণগঞ্জ শাখার ছয়কোটি টাকার একটি চেক কাজলের কাছে দেয়। চেকটি নগদায়নের জন্য ১৯ সেপ্টেম্বর কাজল নিজের নামের আইএফসিআইসি ব্যাংকে উপস্থাপন করলে সেটি ‘ইনসাফিসিয়েন্ট ফান্ড’ মন্তব্যসহ চেকটি ডিজঅনার হয়ে তাঁর কাছে ফেরত আসে। 

এরপরদিন একমাস সময় দিয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে বিল্লালের কাছে লিগ্যাল নোটিশ পাঠান কাজল।  নোটিশ গ্রহণ করার পরও এখন পর্যন্ত পাওনা টাকা পরিশোধ করেননি বিল্লাল। পরে পাওনা টাকা আদায়ের জন্য আদালতের দ্বারস্ত হন নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজের সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল।  

বিল্লাল তাঁর একাউন্টে টাকা নাই জেনেও ৬ কোটি টাকার চেক কাজলকে প্রদান করে ও তাঁর টাকা পরিশোধ না করেন এনআই এক্ট ১৩৮ ধারার অপরাধ করেছেন বলে মামলায় এজহারে উল্লেখ করা হয়।  

এই বিভাগের আরো খবর