শুক্রবার   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৫ ১৪২৬   ২০ মুহররম ১৪৪১

৩ কোটি টাকা পুরস্কারের ঘোষণা দিলেন সেলিম ওসমান

প্রকাশিত: ১৬ আগস্ট ২০১৯  

যুগের চিন্তা ২৪ : নারায়ণগঞ্জ-৫ (সদর-বন্দর) আসনের সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিক পালন করা হয়েছে। 


এ সময় তিনি বন্দর উপজেলার সকল স্কুল এবং নারায়ণগঞ্জ ও বন্দরের ৫টি কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে ‘বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা’ শীর্ষক পৃথক দুটি রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন করার কথা বলেছেন। পৃথক দুটি রচনা প্রতিযোগিতায় মোট ৩ কোটি টাকার পুরস্কার প্রদানের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।
এছাড়া তিনি বন্দরে শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ের জন্য ২৫ লাখ এবং মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বঙ্গমাতা ফজিলেতুনেচ্ছা মুজিব ভবনের জন্য আরও ৭৫ লাখ টাকার চেক প্রদান করেন।

 

বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত বন্দর ও নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যবসায়ী সংগঠন বিকেএমইএ ও নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এবং জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে তিনি এ ঘোষণা দেন।


বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা বন্দরের ধামগড় ইউনিয়নের হালুয়াপাড়া দশদোনা এলাকায় ব্যক্তিগত অর্থায়নে নির্মিত শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ে বঙ্গবন্ধু ও শেখ জামালেরসহ তাঁর পরিবারের নিহত সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দিনের কর্মসূচী শুরু করেন এমপি সেলিম ওসমান।


এ সময় তিনি মঞ্চে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির দুজন শিক্ষার্থীকে বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে বক্তব্যে দেওয়ার জন্য আহবান জানান। শিক্ষার্থীদের বক্তব্যের পর তিনি ‘বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতা’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতারআয়োজনের ঘোষণা দেন। 


সেলিম ওসমান বলেন, বন্দর উপজেলার প্রতিটি স্কুলকে নিয়ে প্র্রতিযোগিতার আয়োজন করা হবে। প্রতিযোগীতায় ২ কোটি টাকার মোট ১০টি পুরস্কার প্রদান করা হবে। এরমধ্যে বিজয়ী শিক্ষার্থীদের প্রাপ্য পুরস্কারের অর্ধেক পাবে শিক্ষার্থী এবং বাকি অর্ধেক উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এর মধ্য থেকে কিছু অংশ যারা শিক্ষার্থীদের ট্রেনআপ করবে তাদেরকে সম্মানী হিসেবে প্রদান করা হবে।


অপরদিকে সকাল ১১টায় নারায়ণগঞ্জ কলেজে শেখ কামাল ভবনে অনুষ্ঠিত দোয়ার পূর্বে তিনি ঘোষণা দেন বন্দর উপজেলার স্কুলগুলোর ন্যায় নারায়ণগঞ্জ এবং বন্দরে অবস্থিত ৫ টি কলেজ সরকারি তোলারাম কলেজ, সরকারি মহিলা কলেজ, নারায়ণগঞ্জ কলেজ, সরকারি কদম রসুল কলেজ এবং নাজিম উদ্দিন ভূইয়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝেও একই বিষয়ে একই নিয়মে প্রতিযোগীতার আয়োজন করা হবে। আর কলেজভিত্তিক শিক্ষার্থীদের নিয়ে আয়োজিত রচনা প্রতিযোগীতার পুরস্কার হবে ১ কোটি টাকা। 


এসময় তিনি নিজ অর্থায়নে নির্মিত শেখ জামাল উচ্চ বিদ্যালয়ের ভবনটি উর্ধমুখী সম্প্রসারণ(৫তলা) করার জন্য আরো ২৫ লাখ টাকার চেক স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাসুম আহম্মেদ এর হাতে তুলে দেন।


এর আগে সকাল ১০টায় মদনপুর বাসস্ট্যান্ডে আরও একটিদোয়া অংশ নিয়ে রান্না করা খাবার বিতরণ করেন এমপি সেলিম ওসমান।


পরে, সকাল সাড়ে ১১টায় নীট গার্মেন্টস ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিকেএমইএ এর প্রধান কার্যালয়ে বিকেএমইএ এর আয়োজনে মিলাদ ও দোয়া অংশ তিনি।  সেলিম ওসমান এ সংগঠনের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। এরপর খানপুর হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় আরও একটি দোয়ায় অংশ নেন। 


পরে তিনি মর্গ্যান বালিক উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর নিয়ে আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানে যোগদেন। সেখানে তিনি মর্গ্যান বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বঙ্গমাতা ফজিলেতুনেচ্ছা মুজিব ভবনের উর্ধমুখী সম্প্রসারণের জন্য ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৭৫ লাখ টাকার চেক স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি আনোয়ার হোসেনের হাতে তুলে দেন। এর আগে তিনি ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলেতুন্নেচ্ছা মুজিব নামে ভবনটি নির্মাণ করেছেন।


মর্গ্যাণ স্কুলে দোয়ার পূর্বে এমপি সেলিম ওসমান বলেন, আজকে আমরা পতাকা আকঁতে পেরেছি স্বাধীন হতে পেরেছি বঙ্গবন্ধুর জন্য। তিনি দেশের দায়িত্ব নিয়েছেন তোমরা নারায়ণগঞ্জের দায়িত্ব নাও। আমি চেষ্টা করবো এই স্কুলটাকে স্কুল এবং কলেজ হিসেবে সম্পন্ন করার জন্য। 


পরে তিনি বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নারায়ণগঞ্জ জেলা ইউনিটের উদ্যোগে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে আয়োজিত দোয়া এবং নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি আয়োজিত মিলাদ ও দোয়া অংশগ্রহণ করেন।


অনুষ্ঠানগুলোতে এমপি সেলিম ওসমান ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো. জসিম উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, বন্দর উপজেলার চেয়ারম্যান এমএ রশিদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোহাম্মদ আলী, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়াদার খান কাজল,  সদর উপজেলার ইউএনও নাহিদা বারিক, বিকেএমইএ এর প্রথম সহ সভাপতি মনুসর আহম্মেদ, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন ভূইয়া সাজনু, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালন ফারুক বিন ইউসুফ পাপ্পু, ধামগড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ, মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাকসুদ হোসেন, বন্দর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এহসান উদ্দিনসহ অন্যান্য অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

এই বিভাগের আরো খবর