বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৬ ১৪২৬   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

২৩ ঘন্টা রোজা রাখতে হয় যেখানে

প্রকাশিত: ১২ মে ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা) : ফিনল্যান্ডের সবচেয়ে উত্তরের শহর ল্যাপল্যান্ড এলাকায় বসবাসরত মুসলমানরা দীর্ঘ সময় ধরে রোজা রাখেন। সেখানে রাত আসে ৫৫ মিনিটের জন্য। তাই তাদের প্রতিদিনকার রোজার দৈর্ঘ হয় ২৩ ঘন্টারও বেশি।


দেশের উত্তরের অন্যান্য শহরগুলোতে ১ ঘন্টারও কম সময়ের মধ্যে ইফতার ও সাহরি সম্পন্ন করতে হয় রোজাদারদের। এতো দীর্ঘ সময় রোজা রাখা অনেকটা অসাধ্য হওয়ায় সেখানকার ইসলামকি স্কলার ও চিন্তাবিদ ফতোয়া দিয়েছেন পার্শ¦বর্তী কোনো মুসলিম দেশের সময় অনুপাতে রোজা রাখতে। কিন্তু ফিনল্যান্ডের অধিবাসিরা এই সুযোগ থাকা সত্বেও দীর্ঘ ২৩ ঘন্টা রোজা রাখছেন, আর ইফতার করছেন মাত্র ১ ঘন্টার জন্য।


ফিনল্যান্ডে বসবাস করেন নানা দেশীয় মুসলমান। জীবনযাত্রার মান যথেষ্ট উন্নত হওয়ায় নানা দিক থেকে বিশ্বের মানুষের মাঝে আজ বেশ আলোচিত দেশ এটি। শীতপ্রধান এ দেশটির মোট জনসংখ্যা ষাট লাখের মতো, এর মধ্যে মুসলমান এর সংখ্যা প্রায় এক লাখ। যা মোট জনসংখ্যার মাএ ২ শতাংশ। ইরাক, সোমালিয়া, তুরস্ক, থাইল্যান্ডের অনেক মুসলমান এখানে বসবাস করেন। 


এক সময় ফিনল্যান্ডে সবধরনের ইসলামি কার্যক্রম নিষিদ্ধ ছিল। ১৯২৫ সালে সর্বপ্রথম আনুষ্ঠানিকভাবে ইসলামি জলসা অনুষ্ঠিত হয়। দীর্ঘতম দিনের বিষয়টি মাথায় রেখে ফিনল্যান্ডের মুসলমান ১৮ ঘন্টার বেশি সময় রোজার দৈর্ঘ্য হলে পার্শ্ববর্তী দেশ তুরস্ক অথবা মক্কার রোজার সময় অনুসরণ করতে বলা হয়েছে। এ বছর তাদের অনেকেই সেই ফতোয়াকে অনুসরণ করেছেন।


আবার মাত্র ৯ ঘন্টা ৩০ মিনিট রোজা রাখছেন আর্জেন্টিনার বাসিন্দারা। এছাড়া ১০ ঘন্টার রোজা রাখছেন অষ্ট্রেলিয়ার মুসলমানরা। পাশাপাশি এশিয়ার পাকিস্তানে ১৫ ঘন্টা, ভারত ও বাংলাদেশে বাসিন্দাদের ১৪ ঘন্টা ৩০ মিনিট রোজা রাখতে হচ্ছে।

এই বিভাগের আরো খবর