মঙ্গলবার   ১২ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৭ ১৪২৬   ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

১৬ সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলা, ‘নারায়ণগঞ্জ বার্তা ২৪’র নিন্দা

প্রকাশিত: ১১ অক্টোবর ২০১৯  

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি (যুগের চিন্তা ২৪) : নারায়ণগঞ্জের ৭টি পত্রিকার ১৬ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে মামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে অনলাইন সংবাদ মাধ্যম “নারায়ণগঞ্জ বার্তা ২৪” পরিবার। এছাড়াও দ্রুত মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি জানিয়েছে পত্রিকাটির প্রকাশক ও সম্পাদক সৈয়দ সিফাত আল রহমান লিংকন। 


শুক্রবার (১১ অক্টোবর) পত্রিকাটির সম্পাদক গণমাধ্যমে পাঠানে এক বিবৃতিতে এ তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।


 আনন্দ টিভি’র নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ও পত্রিকাটির সম্পাদক সৈয়দ সিফাত আল রহমান লিংকন বলেছেন, ব্যক্তি মত বিরোধ থাকতে পারে তবে পেশাগত দিক থেকে সকল সাংবাদিক ঐক্যবদ্ধ রয়েছে। সংবাদকর্মীদের উপর মামলা হামলা পুরনো বিষয়। এসব মামলা দিয়ে কখনো অপরাধ ঢেকে রাখা যায়না, সমাধানও সম্ভব হয়না। বরং সংবাদকর্মীদের পেশাদারিত্বের দিক থেকে মান আরও উন্নত হচ্ছে। সকল সংবাদকর্মী ঐক্যবদ্ধ হয়ে কঠোর পদক্ষেপ নিলে হয়তো এদের অনেকেই হারিয়ে যাবে।  


সংবাদর্র্কমীদের ভূমিকা তুলে ধরে তিনি বলেন, একজন সংবাদকর্মী দিন-রাত কঠোর পরিশ্রম করে তথ্য সংগ্রহ করে সাধারণ মানুষের কাছে নানা অজানা সংবাদ পত্রিকায় প্রকাশের মাধ্যমে তুলে ধরেন।  যেখানে উন্নয়ন, অগ্রগতি, মানুষের অধিকারসহ দুর্নীতি, অনিয়ম, অবক্ষয়, দুর্ভোগ তুলে ধরা হয়। এতে কখনো কারো পক্ষে যাবে আবার কারো বিপক্ষে যাবে এটা স্বাভাবিক। যদি আপনি ভালো কাজ করেন সেটা যেমন আপনার নিজ ইচ্ছায় পত্রিকায় প্রকাশে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন, তেমনি নেতিবচক দিক থাকলে সেটাও প্রকাশ হলে, গ্রহন করার মানসিকতা থাকা জরুরি। কারণ সেখান থেকে ভুলগুলো শুধরিয়ে সচেতন হওয়া  শ্রেয়। 

 

তিনি আরও বলেন, মামলার মাধ্যমে কখনোই গণ্যমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করা আগেও সম্ভব হয়নি, ভবিষ্যতেও হবে না। আমরা সকল সাংবাদিকই আপনাদের পরম বন্ধু যতক্ষণ না পর্যন্ত বিপক্ষে সংবাদ প্রকাশ হয়, এমন মানসিকতা থেকে ফিরে আসলেই দেশ ও সমজের উন্নয়নের অগ্রগতি বাড়বে।

 

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) নারায়ণগঞ্জ  চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ‘ক’ এবং ‘খ’ অঞ্চলো আদালতে নারায়ণগঞ্জের ৮ টি পত্রিকার ১৬ জন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দুটি পৃথক মামলা দায়ের করা হয়।


মামলা দুটির মধ্যে একটি বাদী সিদ্ধিরগঞ্জের এসও রোডের স্বপন মন্ডল। তার পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন অ্যাড. হাবিবুর রহমান মাসুম এবং অপরটির বাদী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী। তার পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন অ্যাড. মশিউর রহমান শাহিন। 


স্বপনের করা মামলায় ৭ পত্রিকার ১৪ জন এবং মীর সোহেল আলীর মামলায় এক পত্রিকার দু’জন সাংবাদিককে বিবাদী করা হয়েছে।


স্বপন মন্ডলের দায়েরকৃত মামলায় বিবাদীরা হলেন নারায়ণগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক সচেতন পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক কাজী ইসলাম, একই পত্রিকার বার্তা সম্পাদক ইমতিয়াজ আহম্মেদ, দৈনিক সময়ের নারায়ণগঞ্জ এর প্রকাশক সম্পাদক জাবেদ আহম্মেদ জুয়েল, বার্তা সম্পাদক শাহীন, দৈনিক সংবাদ চর্চা এর প্রকাশক সম্পাদক মুন্না খাঁন, বার্তা সম্পাদক আনোয়ার হাসান, দৈনিক স্বাধীন বাংলাদেশ এর ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মো.ইলিয়াস মোল্লা, বার্তা সম্পাদক জসিম উদ্দিন, ব্যবস্থাপনা সম্পাদক সোহেল রানা, দৈনিক যুগের চিন্তার প্রকাশক সম্পাদক আবু আল মোরছালিন বাবলা, নির্বহী সম্পাদক এজাজ কোরেশী এবং দৈনিক মাতৃভূমির খবরের প্রকাশক ও সম্পাদক মো. রেজাউল করিম, উপদেষ্টা সম্পাদক আনায়ারুল ইসলাম, নির্বাহী সম্পাদক এনামুল কবির।


অন্যদিকে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলীর দায়েরকৃত মামলায় বিবাদীরা হলেন-দৈনিক ডান্ডিবার্তা পত্রিকার প্রকাশক-সম্পাদক হাবিবুর রহমান বাদল এবং একই পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আ. রহিম।


স্বপন তার মামলায় দাবি করেছেন ‘ক্যাসিনো ডন সেলিম প্রধান গ্রেফতার হলেও প্রকাশ্যে ঘনিষ্ট বন্ধু স্বপন মন্ডল’, ‘ক্যাসিনো ডন সেলিম প্রধান গ্রেফতার আতঙ্কে গা ঢাকা দিয়েছে স্বপন মন্ডল’ ইত্যাদি শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে। সেসব সংবাদ মিথ্যা বলে দাবি করেছেন তিনি। একই সাথে তিনি দাবি করেছেন এ সংবাদের কারণে তার ৫ কোটি টাকার মানহানি ঘটেছে।


অন্যদিকে মীর সোহেল আলী দাবি করেছেন, ডান্ডিবার্তায় প্রকাশিত সংবাদ অসত্য মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্যে ভরপুর। এর ফলে তারও মানহানি ঘটেছে বলে তিনি দাবি করেছেন

এই বিভাগের আরো খবর