রোববার   ০৫ এপ্রিল ২০২০   চৈত্র ২২ ১৪২৬   ১১ শা'বান ১৪৪১

১৪ বছর পর সম্পত্তি ফিরে পেল ডিক্রীচরের নোয়াব আলী 

প্রকাশিত: ২০ মার্চ ২০২০  

যুগের চিন্তা রিপোর্ট : দীর্ঘ ১৪ বছর আইনী প্রক্রিয়া শেষে বিজ্ঞ আদালরে মাধ্যমে নিজ সম্পত্তির দখল বুঝে পেলেন ডিক্রীরচরের সাবেক  মেম্বার নোয়াব আলীর পরিবার। 

সাবেক মেম্বার নোয়াব আলী মিয়া ২০০৬ সালে বিজ্ঞ আদালতে নিজ সম্পত্তি নিয়ে একটি দেওয়ানী মামলা করেন যার মামলা নং ১৮৩/২০০৬। দীর্ঘ আইনী প্রক্রিয়া শেষে বিজ্ঞ আদালতে উল্লেখিত মামলার বর্ণিত সম্পত্তিটির প্রকৃত মালিক হিসেবে নোয়াব আলীর পরিবারকে ঘোষনা করে এবং আদালতের নিদের্শে বলে পরিবারের সদস্যরা জায়গাটি নিজেদের দখলে নেয়।

জানাগেছে, আলীরটেক  ইউনিয়নের ডিক্রীরচর এলাকার মৃত লালমিয়ার ছেলে সাবেক মেম্বার নোয়াব আলী। লাল মিয়া বেপারী মৃত্যুকালে স্ত্রী জাহানারা বেগমকে সহ ৬ ছেলে ও ২ মেয়ে রেখে যায়। তার মৃত্যুর পর-পরই তার আপন ভাই জলিল মিয়া সম্পত্তি নিয়ে মৃত লাল মিয়ার ছেলে ও মেয়েদের উপর অমানুষিক জুলুম করতে থাকে।

বিগত ২০০৬ সালের জুন মাসের শেষের দিকে জলিল মিয়ার নেতৃত্বে এলাকার সন্ত্রাসীরা একত্রিত হয়ে লালমিয়ার ছেলেদের নিজ বসত বাড়ী থেকে জোরপূর্বক  বের করে দেয় এবং বাড়ীতে থাকা সকল আসবাবপত্র বাড়ী থেকে কিছু দুর বুড়িগঙ্গা নদীতে ফেলে দেয়। পরবর্তীতে লাল মিয়ার ছেলে নোয়াব আলী ও তার অন্যান্য ভাইয়েরা নিরুপায় হয়ে বিজ্ঞ আদালতে  মামলা করে।


মামলা সূত্রে আরো জানা যায়, দেওয়ানী মামলাটি রুজু হওয়ার পর বিজ্ঞ আদালতে এজাহারে বর্ণিত সম্পত্তিতে নিষেধাজ্ঞা দিলেও জলিল মিয়া আদালতের নিষেধাজ্ঞা তোয়াক্কা না করে নোয়াব মেম্বারের বাড়ী ঘর ভেঙ্গে ফেলে। 

পরবর্তীতে বিষয়টি বিজ্ঞ আদালতের নজরে আসলে আদালত জলিলের বিরুদ্ধে ভায়োলেশনের একটি মামলা গ্রহণ করে যার মামলা নং ৭/২০০৬।  বিজ্ঞ আদালত কর্তৃক দায়েরকৃত ভায়োলেশন মামলায় জলিল মিয়ার ১ মাসের সাজা ঘোষনা করে আদালত। 
 

এই বিভাগের আরো খবর