বুধবার   ২১ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৬ ১৪২৬   ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

১৩৬ যাত্রী নিয়ে নদীতে বিমান

প্রকাশিত: ৪ মে ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : অবতরণের সময় রানওয়ে থেকে ছিটকে ফ্লোরিডার একটি নদীতে গিয়ে পড়েছে বোয়িং ৭৩৭ মডেলের একটি বাণিজ্যিক বিমান। বিমানটি যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের জ্যাকসনভিলে বিমানবন্দরে অবতরণের সময় কাছাকাছি নেভাল এয়ার স্টেশনের কাছে সেন্ট জোনস নদীতে নদীতে গিয়ে পড়ে।


তবে ওই দুর্ঘটনা থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন বিমানের সব যাত্রী এবং ক্রু সদস্য। তাদের সবাইকে নিরাপদেই বিমানের ভেতর থেকে বের করে আনা সম্ভব হয়েছে। বিমানটি যেখানে গিয়ে পড়েছে সেখানে পানি কম ছিল। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে সঙ্গে সঙ্গেই উদ্ধার তৎপরতা শুরু করা হয়। ফলে যাত্রীদের বড় ধরনের কোন ক্ষতি হয়নি।


গতকাল শুক্রবার রাতে জ্যাকসনভিলের নেভাল এয়ার স্টেশনের কাছে সেন্ট জোনস নদীতে গিয়ে পড়ে ওই বাণিজ্যিক বিমান।
স্থানীয় সময় রাত ৯টা ৪০ মিনিটে মিয়ামি এয়ার ইন্টারন্যাশনালের ওই বিমানটি একটি নৌ-বিমানবন্দরে অবতরণের চেষ্টা করছিল। বিমানটি গুয়ান্তানামো বে থেকে যাত্রা করেছিল। অবতরণের সময় এটি রানওয়ে থেকে ছিটকে সেন্ট জন্স নদীতে গিয়ে পড়ে।


নৌবাহিনীর নিরাপত্তা ও জরুরি উদ্ধার কর্মকর্তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন। ওই এয়ার স্টেশনের এক বিবৃতির বরাত দিয়ে এবিসি নিউজ জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তরের ভাড়া করা উড়োজাহাজ এটি।


জ্যাকসনভিলের মেয়র লেনি কারি এক টুইটে বলেন, এটি মূলত বাণিজ্যিক উড়োজাহাজ। এ দুর্ঘটনায় কেউ হতাহত হননি। উদ্ধারকর্মীরা পানিতে উড়োজাহাজের জ্বালানি ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন।


কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ওই দুর্ঘটনায় বিমানের সব যাত্রী নিরাপদে আছেন। ২১ জন প্রাপ্তবয়স্ককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে তাদের কারো আঘাতই তেমন গুরুতর নয়।


স্থানীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, বিমানটি যে সময় অবতরণের চেষ্টা করছিল তখন ভারী বজ্রপাত হচ্ছিল। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, বিমানটিতে ১৩৬ জন যাত্রী সাতজন ক্রু ছিলেন।


বিমানটি কীভাবে রানওয়ে ছেড়ে নদীতে গিয়ে পড়ল, এখনো সে সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যায়নি। বোয়িংয়ের একজন মুখপাত্র বলেছেন, দুর্ঘটনা সম্পর্কে তাঁরা অবগত। এ সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করছেন তাঁরা।

এই বিভাগের আরো খবর