শনিবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১০ ১৪২৬   ২৭ জমাদিউস সানি ১৪৪১

১০ বছরে ৮ বার বিদ্যুতের দাম বাড়ছে : বাসদ

প্রকাশিত: ১৭ জানুয়ারি ২০২০  

যুগের চিন্তা ২৪ : বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের (বাসদ) নারায়ণগঞ্জ জেলার নেতৃবৃন্দরা বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। শুক্রবার (১৭ জানুয়ারি) বিকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব চত্ত্বরে নেতৃবৃন্দ সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল করে।

 

সমাবেশে তারা বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা বন্ধ, মন্ত্রীসভার বৈঠকে অনুমোদিত বিইআরসি আইন সংশোধন করে বছরে একাধিকবার বিদ্যুৎ-জ¦ালানির দাম বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার এবং নিত্যপণ্যের দাম কমানোর দাবি জানয়।  


 
নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক কমরেড নিখিল দাসের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন ১৫ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর অসিত বরণ বিশ্বাস, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক  ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, বাসদ সোনারগাঁ উপজেলার সমন্বয়ক বেলায়েত হোসেন, ফতুল্লা থানার সমন্বয়ক এম এ মিল্টন।
 
নেতৃবৃন্দ বলেন, নতুন করে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির আবার ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। গত কিছুদিন আগে গণশুনানিতে পিডিবি লোকসানের অজুহাত দেখিতে বিদ্যুতের দাম ২৩.২৭% বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছে। সরকারের দুর্নীতি ও ভুলনীতির দায় জনগণের উপর চাপিয়ে দেয়া হচ্ছে। গত ১০ বছরে সরকার ৮ বার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করেছে।

 

রেন্টাল ও কুইক রেন্টাল বিদ্যুৎকেন্দ্র উৎপাদন না করে সরকার বসিয়ে বসিয়ে তাদের ক্যাপাসিটি চার্জ হিসেবে টাকা দিচ্ছে। এটা না হলে বিদ্যুতে  ১৫০০০ কোটি টাকা সাশ্রয় হতো। মুষ্টিমেয় বিদ্যুৎ ব্যবসায়ীদের মুনাফার স্বার্থে বার বার বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করা হচ্ছে। ইতিমধ্যে বছরে একাধিকবার বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বাড়ানোর জন্য বিইআরসি আইন সংশোধনের জন্য মন্ত্রীসভার বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়। এই অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে জনগণকে রাজপথে নামতে হবে।


 
তারা আরও বলেন, ব্যবসায়ী সিণ্ডিকেট বেপরোয়া। সরকার এদের নিয়ন্ত্রণ করতে সম্পূর্ণ ব্যর্থ। ফলে জিনিসপত্রের দাম বেড়েই চলেছে। পেঁয়াজের মূল্য কারসাজিতে ১৭ জনের একটি সিন্ডিকেট জড়িত। মূলত চারজন গডফাদার ব্যবসায়ী মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টির সাথে যুক্ত এবং এরাই শেয়ার কেলেঙ্কারী ও ব্যাংক কেলেঙ্কারীর সাথেও যুক্ত। গোয়েন্দারা সরকারকে রিপোর্ট দেয়ার পরেও সরকার এদের বিরুদ্ধে কোন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়নি।


 
নেতৃবৃন্দ বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে এবং নিত্যপণ্যের দাম কমানোর দাবিতে গণআন্দোলনে শামিল হওয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

এই বিভাগের আরো খবর