মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৪ ১৪২৬   ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

১০০ বছরের ডেলটা প্ল্যান অনুমোদন

প্রকাশিত: ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে সংকট মোকাবেলায় একশ বছরের জন্য ডেলটা প্ল্যান বা ব-দ্বীপ পরিকল্পনার অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আশিটি প্রকল্প সমন্বিত এ পরিকল্পনার প্রথম ১০ বছরের জন্য ২ লাখ ৯৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয় হবে।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় আর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সভা শেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল এসব কথা জানান।

রাজধানীর শেরে বাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে প্রধানমন্ত্রী ও এনইসি চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিকদের কাছে ব-দ্বীপ পরিকল্পণার বিস্তারিত তুলে ধরেন পরিকল্পনামন্ত্রী। বলেন, ‘ব-দ্বীপ পরিকল্পনা ২১০০ এর অনুমোদন দেয়া হয়েছে। একশ বছরের এই পরিকল্পণার প্রথম দশ বছর অর্থাৎ ২০২০ সাল থেকে ২০৩০ সাল পর্যন্ত ব্যয় হবে ২ লাখ ৯৭ হাজার ৮২৭ কোটি টাকা।’

‘২১০০ সালে কেমন বাংলাদেশ দেখতে চাই, তার সবকিছুই ব-দ্বীপ পরিকল্পনায় রয়েছে। এটি প্রায় একশ বছরের পরিকল্পনা। এখানে ৮০টি প্রকল্প আছে।’

মন্ত্রী বলেন, দেশের পানিসম্পদ নিয়ে প্রায় ১০০ বছর মেয়াদী পরিকল্পনার খসড়া তৈরিতে সহায়তা করেছে নেদারল্যান্ড। কৃষী, নদী-শাসন, বন্যা, ঘূর্ণিঝড়, লবণাক্ততা মোকাবেলা করাই ডেলটা প্ল্যানের উদ্দেশ্য বলে জানান পরিকল্পনামন্ত্রী। এছাড়া জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবেলায় তৈরি এ পরিকল্পনাটি বাস্তবায়নে ডেল্টা তহবিল গঠনেরও একটি প্রস্তাব করা হয়েছে। এ তহবিলের সম্ভাব্য উৎস হিসেবে বাংলাদেশ সরকার, উন্নয়ন সহযোগী, পরিবেশ ও জলবায়ু সম্পর্কিত তহবিল বিশেষ করে গ্রিন ক্লাইমেট ফান্ড (জিসিএফ) এবং সরকারি-বেসরকারি (পিপিপি) বিবেচনা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে পুরো পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ডেল্টা কমিশন গঠনের প্রস্তাব রয়েছে।

এ পরিকল্পনাটি তৈরি করেছে পরিকল্পনা কমিশনের সাধারণ অর্থনীতি বিভাগ (জিইডি)। ২০১৪ সালে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের কাজ শুরু হওয়ার প্রায় সাড়ে তিন বছর পর পরিকল্পনাটি অনুমোদন পেল। ব-দ্বীপ পরিকল্পনায় ২০১৭ সাল থেকে ২০৩০ সালের মধ্যে বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্প এবং সম্ভাব্য বিনিয়োগ সম্পর্কে বলা হয়েছে। সেগুলো হচ্ছে- উপকূলীয় অঞ্চলে ২৩টি প্রকল্পের জন্য ৮৮ হাজার ৪৩৬ কোটি টাকা; বরেন্দ্র এবং খরাপ্রবণ অঞ্চলের ৯টি প্রকল্পের আওতায় ১৬ হাজার ৩১৪ কোটি টাকা; হাওর এবং আকস্মিক বন্যাপ্রবণ অঞ্চলের জন্য ৬টি প্রকল্পের আওতায় ২ হাজার ৭৯৮ কোটি টাকা।

এছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের জন্য ৮ প্রকল্পের অনুকূলে ৫ হাজার ৯৮৬ কোটি টাকা; নদী এবং মোহনা অঞ্চলে ৭টি প্রকল্পের অনুকূলে ৪৮ হাজার ২৬১ কোটি টাকা এবং নগরাঞ্চলের জন্য ১২টি প্রকল্পের অনুকূলে ৬৭ হাজার ১৫২ কোটি টাকা বিনিয়োগ প্রাক্কলন করা হয়েছে।
 

এই বিভাগের আরো খবর