মঙ্গলবার   ১৬ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ১ ১৪২৬   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০

স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ৯ জুলাই ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : ফতুল্লায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রী পলি আক্তারকে (২৮) বটি দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে স্বামী জামাল হোসেন (৩৫) বিষ পানে আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনা নিয়ে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।


মঙ্গলবার (৯ জুলাই) ভোরে ফতুল্লাার পশ্চিম দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় মোশারফ হোসেন মিয়ার ভাড়াদেওয়া বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ  দুপুরে লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে।


নিহত স্ত্রী পলি আক্তার পটুয়াখালীর মীর্জাগঞ্জ থানার ময়দাশ্রীনগর এলাকার শাহজাহান শিকদারের মেয়ে। আর জামাল হোসেন একই উপজেলার সুবিদখালীর সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে।

 

নিহত পলি আক্তার ফতুল্লার বিসিক শিল্পনগরীর ফকির এ্যাপারেলসের শ্রমিক ও জামাল হোসেন শহরের চাষাড়ায় চা বিক্রেতা। তারা সম্পর্কে মামাতো ফুফুতো ভাই বোন।

 

নিহতের ছোট ভাই মাঈনুল ইসলাম জানাান, তার বড় বোন পলির আগের বিয়ে হয়েছিল। সেই সংসারে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। তাহার নাম শাহাজাদা (৯)। আগের স্বামীকে ডিভোর্স দিয়ে মামাতো ভাই জামালকে বিয়ে করে। তারা স্বামী স্ত্রী ফতুল্রার পশ্চিম দেওভোগ আদর্শনগর এলাকায় মোশারফ হোসেন মিয়ার বাড়িতে  ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছিল। 


সোমবার রাতে তাদের রুমে দেখতে পায় তার বোন পলি রক্তাক্ত অবস্থায় বিছানায় পড়ে রয়েছে। আর বোন জামাই জামাল হোসেনের মুখ দিয়ে ফেনা বের হচ্ছে। পরে তাদের দুইজনকে দ্রুত নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক পলিকে মৃত ঘোষণা করেন। এবং জামালকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক জামালকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে এমন কেন ঘটনা ঘটলো তা সঠিকভাবে কিছু জানাতে পারেননি তিনি।


ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে সোমবার রাত আনুমানিক ১টার দিকে স্বামী জামাল হোসেন তার স্ত্রী পলিকে বটি দিয়ে মাথায় কুপিয়ে এবং লাঠি দিয়ে মুখে আঘাত করে হত্যা করে। লাঠির আঘাতে পলির ৮/১০ দাত ভেঙ্গে যায় এবং মাথার ]কোপে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। পরে রাতেই স্বজনরা তাদের হাসপাতালে নিলে উভয়ে মৃত্যুবরণ করে। 


নিহতের লাশ উদ্ধার করে মঙ্গলবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়। তাদের স্বজনদের সাথে আলোচনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই বিভাগের আরো খবর