মঙ্গলবার   ১৬ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ১ ১৪২৬   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪০

সোনারগাঁয়ে ভুল নকশায় নির্মিত ব্রীজে দুর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে জনগণ

প্রকাশিত: ২৫ জুন ২০১৯  

সোনারগাঁ (যুগের চিন্তা ২৪) : সোনারগাঁয়ের জামপুর ইউনিয়নের বশিরগাঁও খালে ভুল নকশায় নির্মিত ব্রীজের কারনে দুর্ঘটনায় পতিত হচ্ছে ওই এলাকায় শিক্ষার্থীসহ জনসাধারণ। 

ব্রীজের ঢালুতে সড়ক সংযোগের এপ্রোচ দেয়াল বাঁকা করে নির্মাণ করার কথা থাকলেও এ দেয়াল নির্মাণ করা হয়েছে সোজা করে। 

এতে করে গাড়ি মোড় নিতে গিয়ে উল্টে গত ১০ বছরে ছোট বড় প্রায় অর্ধশত দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে এলাকাবাসী। এতে শিক্ষার্থীসহ প্রায় ৪০ জন আহত হয়েছে। এ থেকে পরিত্রাণের জন্য কর্তৃপক্ষের কাজের সংস্কারের আবেদন জানিয়েছেন এলাকাবাসী। 

জানা যায়, উপজেলার জামপুর ইউনিয়নের মহজমপুর বাজার থেকে প্রভাকরদী যাওয়ার পথে বশিরগাঁও খালের উপর ২০০৯ সালে একটি ব্রীজ নির্মিত হয়। ব্রীজটি নির্মাণের ফলে ওই এলাকার প্রায় ১০ হাজারেরও বেশি জনগন সুফল ভোগ করছে। 

সুফল ভোগের পাশাপাশি ব্রীজ থেকে গাড়ি নামতে গিয়ে এপ্রোচ দেয়ালে ধাক্কা লেগে গাড়ি উল্টে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে জনগন। 
এ স্থানে গাড়ি উল্টে মহজমপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী আমেনা আক্তার, সুরাইয়া ও আবু তালেব আহত হয়েছে। 

এছাড়াও ওই এলাকার ব্যবসায়ী মো. রিপন আহম্মেদ, রাজিব ভূইয়া, চাকুরীজিবী আসাদউল্লাহ, আবুল হাসেম, গাড়ি চালক আসাবউদ্দিনসহ প্রায় ৪০জন আহত হয়েছে। এখনও ব্যবসায়ী রিপন পা ভেঙ্গে দুর্ঘটনার চিহ্ন বয়ে বেড়াচ্ছেন। 

বশিরগাঁও গ্রামের ফরিদ হোসেন মল্লিক বলেন, আমরা ব্রীজ নির্মাণকালে এ সংযোগ এপ্রোচ দেয়ার সময় ঠিকাদারকে বাঁধা দিয়েছিলাম। ওই সময়ে ঠিকাদার প্রকৌশলীকে দায়ী করেছিলেন। 

তিনি নকশা দেখিয়ে বলেছিলেন নকশা যা আছে আমরা তাই নির্মাণ করছি। প্রকৌশলীর ভুলের মাসুল আমাদের জনগনকে হাত পা ভেঙ্গে দিতে হচ্ছে। এ স্থানে প্রতি মাসেই ছোট বড় কোন না কোন দুর্ঘটনা ঘটছে। 

আহত ব্যবসায়ী রিপন আহম্মেদ জানান, ব্রীজের দুদিকে রাস্তা রয়েছে। এপ্রোচ সড়ক দুদিকে বাঁকা করে নির্মাণ করার নিয়ম রয়েছে।

কিন্তু এ ব্রীজের এপ্রোচ দেয়াল সোজা করে দেওয়ার কারনে গাড়িগুলো ঘুরানোর সময়ে উল্টে গিয়ে মানুষ আহত হন। এ দেয়ালটি সংস্কার করার জন্য কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানাচ্ছি। 

জামপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মাসুদ করিম ভূইয়া সুমন জানান, ব্রীজটি নির্মাণে এলাকাবাসীর দীর্ঘদিন প্রত্যাশা পূরন হয়েছে। 

এপ্রোচ দেয়াল সোজা করে নির্মাণ করায় মানুষ দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছেন। এপ্রোচ দেয়ালটি সংস্কার করে বাঁকা করে নির্মাণ করার আহবান জানাচ্ছি।  

সোনারগাঁ উপজেলা  প্রকৌশলী আলী হায়দার খাঁন বলেন,  আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। চলতি বছরেই এ এপ্রোচ দেয়ালটি নির্মাণ করা হবে।  

এই বিভাগের আরো খবর