শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

সিদ্ধিরগঞ্জে ভাড়াটিয়া সেজে দারোয়ানকে হত্যা : স্বর্ণালংকার লুট

প্রকাশিত: ২৫ নভেম্বর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : সিদ্ধিরগঞ্জে বোরকা পড়ে বাসা ভাড়া নেয়ার কথা বলে কৌশলে বাড়ীতে প্রবেশ করে দারোয়ানকে আটকে রেখে বাড়ীওয়ালী লাভলী বেগম (৪০) ও তার ছেলে আরাফাত (৪) কে মারধর করে ১৩ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করেছে অজ্ঞাত দূর্বৃত্তরা। 

সোমবার (২৫ নভেম্বর) বিকাল সাড়ে ৪টায় মহানগরের ৪নং আটি হাউজিং এলাকার ৭নং গলির উত্তর মাথার সৌদি প্রবাসী আরব আলীর ৭ম তলা বাড়ীর চতুর্থ তলায় এ ঘটনাটি ঘটেছে। 

এসময় দারোয়ন ইমতিয়াজকে মাথায় আঘাত করলে সে গুরুতর রক্তাক্ত আহত হয়। পরে হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি ছুড়ি, ৩টি মোবাইল ও বাড়ীর সিসি ক্যামেরার ফুটেজ জব্দ করেছে।

নিহত দারোয়ন ইমতিয়াজ রংপুর জেলার কোতয়ালী থানার ৩নং ইস্পাহানী বিহারী ক্যাম্পের মৃত আ: লতিফের ছেলে। সে তার স্ত্রী সন্তান নিয়ে একই বাড়ীতে বসবাস করতো।

খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ প্রশাসনের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক, পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক, উপ-পরিদর্শক (এসআই) মজিবুর রহমান ও জয়নাল আবেদীন সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সোমবার সকালে এবং বিকালে দুইজন অজ্ঞাত ব্যক্তি বোরকা পড়ে বাসা ভাড়া নেয়ার কথা বলে ওই বাড়ীতে প্রবেশ করে। এসময় তারা দারায়ন তাকে বাসা দেখানোর জন্য ৫ম তলায় নিয়ে গেলে সেখানো তারা বেধরক মারধর করে। এতে তার মাথা থেতলে গিয়ে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়।

পরে তাকে তারা ওই ফ্লাটে আটকে রেখে ৪র্থ তলায় বাড়ীওয়ালীর ফ্লাটে প্রবেশ করে বাড়ীওয়ালী ও তার শিশু সন্তানকে মারধর করে গুরুতর আহত করে এবং বাড়ীওয়ালীর শরীর থেকে ১০ ভরি ওজনের দুইটি হাতের চুড়ি এবং ৩ ভরি ওজনের দুইটি চেইন লকেটসহ লুট করে পালিয়ে যায়। 

পরে স্থানীয়রা কেয়ারটেকার ইমতিয়াজকে উদ্ধার করে স্থানীয় সুগন্ধা হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করলে তারা তাকে নারায়ণগঞ্জ ৩’শ শয্যা বিশিষ্ট খানপুর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেও কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে। এদিকে বাড়ীওয়ালীকেও স্থাণীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল ফারুক জানায়, বাড়ীর মালিক আরব আলী সৌদি প্রবাসী। ৭ তলা বিশিষ্ট ওই বাড়ীতে বাড়ীওয়ালী তার ছেলেকে নিয়ে বসবাস করে। সোমবার সকালে দুইজন দূর্বৃত্ত ভাড়াটিয়া সেজে বাসা ভাড়া নেয়ার জন্য এসেছিল। 


তারা দ্বিতীয় দফায় বিকালে বোরকা পড়ে এসে কৌশলে ওই বাড়ীতে প্রবেশ করে দারোয়নকে ৫তলার একটি ফ্লাটে নিয়ে মারধর করলে মাথায় গুরুতর জখম হয় এবং বাড়ীওয়ালী ও তার ছেলেকেও মারধর করে তারা। পড়ে তাকে হাসপাতালে নেয়ার সময়  দারোয়ন ইমতিয়াজ মারা যায়। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।


অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক-সার্কেল) মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে জানায়, দূর্বত্তরা দারোয়ান এবং বাড়ীওয়ালীকে মারধর করে প্রায় ১৩ ভরির মতো স্বর্ণালংকার লুট করে নিয়ে পালিয়ে গেছে। দারোয়ানকে হাসপাতালে নেয়ার পথে সে মারা যায়।

এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে এবং খুনীদেরকে সনাক্ত করতে বাড়ীটির সিসি ক্যামেরার ফুটেজ জব্দ করা হয়েছে।  

এই বিভাগের আরো খবর