মঙ্গলবার   ২০ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

সিদ্ধিরগঞ্জে গ্রেপ্তারকৃত দুই ভুয়া ডাক্তার ১ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) :  সিদ্ধিরগঞ্জের ‘পপুলার হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব’ এ রোগী দেখার সময়  র‌্যাব-১১ এর হাতে গ্রেফতারকৃত দুই ভুয়া ডাক্তারের এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

 

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নুর নাহার ইয়াসমিনের আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত শুনানি শেষে এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

 

গ্রেফতারকৃতরা হলেন, মো.কামাল হোসেন (৪৩) এবং মায়া বেগম (৩৬)। মো. কামাল হোসেনে পপুলার হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও মায়া বেগম চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

 

এর আগে গত (৮ জুলাই) সোমবার রাত সাড়ে নয়টায় দিকে গোপন সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে চিটাগাংরোডে অবস্থিত হাজী রজ্জব আলী সুপার মার্কেট এর ৩য় তলায় ‘পপুলার হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব’ এ রোগী দেখার সময়  এ দুই ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তাদের কাছ থেকে ডাক্তার হিসেবে রোগী দেখার প্রেসক্রিপশন, বিভিন্ন প্যাথোলজিক্যাল রিপোর্ট, এক্স-রে রিপোর্ট ও আল্ট্রাসনো রিপোর্ট উদ্ধার করা হয়।

 

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) দুপুরে র‌্যাব-১১ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

 

গ্রেফতারকৃতদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ ও প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায়, প্রায় ২ বছর যাবৎ কোন সরকারি অনুমোদন না নিয়েই পপুলার হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব পরিচালনা করে আসছিলো তারা।

 

তাছাড়া কামাল হোসেন ও মায়া বেগম দীর্ঘদিন নিজেদেরকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে উক্ত হাসপাতালে নিয়মিত রোগীও দেখে এবং বিভিন্ন ডাক্তারের নামে ভুয়া প্যাথোলজিক্যাল ও আল্ট্রাসনো রিপোর্ট তৈরি করে রোগীদের সাথে প্রতারণা করে আসছে। এমনকি তাদের কাছে পপুলার হসপিটাল এন্ড ডিজিটাল ল্যাব এর সরকারি অনুমোদন দেখতে চাইলে কোন অনুমতিপত্র দেখাতে পারেনি।

 

হাসপাতালের এমডি মো.কামাল হোসেন ও চেয়ারম্যান মায়া বেগম পরষ্পর যোগসাজসে রোগী দেখে, বিভিন্ন প্রকার অপ্রয়োজনীয় টেস্ট দিয়ে রোগীদের কাছ থেকে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নিয়ে রোগীদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছিলেন।

এই বিভাগের আরো খবর