বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭   ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

সাড়ে ৫ হাজার কর্মহীন ও দরিদ্র পরিবারের সহযোগিতায় নারায়ণগঞ্জ ক্লাব

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২০  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : বর্তমান সময়ের আলোচিত বিষয় হলো প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। আর এই করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি সামলাতে অনেককেই হিমশিম খেতে হচ্ছে। এমতাবস্থায় সাড়ে ৫ হাজার কর্মহীন, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের সহযোগিতায় এগিয়ে এলেন নারায়ণগঞ্জ ক্লাব। সেই সাথে তারা দেশের অন্যান্য ক্লাবগুলোকেও কর্মহীন, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের সহযোগিতায় এগিয়ে আসার আহবান জানিয়েছেন।


জানা যায়, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের লক্ষ্যে সকল প্রকার গণজমায়েত বন্ধ ও ঘরের বাহিরে বের না হওয়ার নির্দেশনা জারি করেছেন সরকার। সেই সাথে সরকারি বেসরকারি সকল প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ফলে অনেকেই কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। এমতাবস্থায় করোনা পরিস্থিতি সামলাতে অনেকেই হিমশিম খাচ্ছেন। আর এসকল কর্মহীন অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের সহযোগিতায় এগিয়ে এসেছেন নারায়ণগঞ্জ ক্লাব।


যার ধারাবাহিকতায় সাড়ে ৫ হাজার কর্মহীন, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের সহযোগিতায় তারা বিভিন্ন খাদ্য বিতরণ করার উদ্যোগ নিয়েছেন। এর ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (৩ এপ্রিল) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার কাছে তাদের বরাদ্দকৃত খাদ্য সামগ্রী হস্তান্তর করে।


এসময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণঘঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাহিদা বারিক, নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি তানভীর আহমেদ টিটু, সিনিয়র সহসভাপতি ডা. শফিউল আলম ফৌদৌস, কার্য নির্বাহী কমিটির সদস্য ইবি ইব্রাহীম খলিল, এস এম শাহীন, আরাফাত আহমেদ রাজীব, বাপ্পী ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এবং ক্লাব সদস্য আবুল কালাম আজাদ বিশ^াসসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।


এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি তানভীর আহমেদ টিটু বলেন, শতাব্দির প্রাচীন ক্লাব হচ্ছে নারায়ণগঞ্জ। নারায়ণগঞ্জ ক্লাব একটি সামাজিক ক্লাব। সেই সামাজিকতার প্রেক্ষাপটে দুঃস্থ ও অসহায়দের সহযোগিতায় নারায়ণগঞ্জ ক্লাব এগিয়ে এসেছে। সেই লক্ষ্যে ব্যক্তিগতভাবে দিতে গেলে হুড়াহুড়ি সৃষ্টি হয়, কেউ পায় কেউ পায় না। বিশেষ করে বর্তমান প্রেক্ষাপটে সামাজিক ডিসটেন্ট ম্যানটেন্ট করা হয় না। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় জেলা প্রশাসনের সমন্বয়ে তাদের তালিকা অনুযায়ী প্রত্যেকেই যেন খাদ্যটি পায় সেটা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ক্লাবের পক্ষ থেকে সদর উপজেলাকে হস্তান্তর করেছি।


তিনি আরও বলেন, আমরা সাড়ে ৫ হাজার পরিবারের কর্মহীন, অসহায় ও দরিদ্র পরিবারের মাঝে খাবার বিতরণ করেছি। সাড়ে ৫ হাজার পরিবার বলা যায় ২২ থেকে ২৫ হাজার লোকের কমপক্ষে ৪ থেকে ৫ দিনের খাবার দিয়ে দিয়েছি। আমাদের এই কার্যক্রম চলমান থাকবে। সেই সাথে আমি আহবান করবো বাংলাদেশের যত ক্লাব আছে তারা যদি এভাবে এগিয়ে আসে তাহলে ২ থেকে ৩ লাখ লোককে আমরা এক সপ্তাহ চালানোর ব্যাবস্থা করতে পারবো। তাই সব ক্লাবের প্রেসিডেন্টকে আহবান জানাচ্ছি তারাও যেন এভাবে এগিয়ে আসে।
প্রসঙ্গত, এর আগে গত ২ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জ ক্লাবের পক্ষ থেকে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো.জসিম উদ্দিনের কাছে জেলা প্রশাসনের জন্য বরাদ্দকৃত খাদ্য সামগ্রী হস্তান্তর করা হয়েছিল।

এই বিভাগের আরো খবর