শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৮ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

লাশের গলায় চিরকুটে লেখা ‘আমি ধর্ষক’ 

প্রকাশিত: ২৬ জানুয়ারি ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : ‘আমার নাম সজল, আমি কারিমা ধর্ষণের ধর্ষক, তাই আমার এই পরিণতি’ এমন একটি চিরকুট গলায় ঝোলানো অবস্থায় এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।শনিবার বেলা ২টার দিকে ঝালকাঠির কাঁঠালিয়া উপজেলার বিণাপাণি এলাকার ফসলি মাঠ থেকে ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

গলায় চিরকুট ঝোলানো অবস্থায় যুবকের মরদেহ উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়লে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তার অভিভাবকরা কাঁঠালিয়া থানায় আসেন। মৃত সজল ভান্ডারিয়া উপজেলার নদমুল্লাহ গ্রামের আলম জোমাদ্দারের ছেলে। উদ্ধার হওয়া মরদেহের ময়নাতদন্তের জন্য ঝালকাঠি সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শৌলজালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান রিপন বলেন, বেলা ২টার দিকে থানা পুলিশের এসআই আলী হোসেন মোবাইলে বিষয়টি আমাকে জানান। পরে এসআইকে নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই। ভান্ডারিয়া-কাঁঠালিয়া সড়ক থেকে ১০০ গজ উত্তর দিকে বিনাপানি এলাকার ফসলি মাঠ ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

চেয়ারম্যান মাহমুদ হাসান রিপন আরও বলেন, মৃত যুবকের বয়স আনুমানিক ৩০ বছর হবে। যুবকের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। তার গলায় ঝোলানো একটি চিরকুট পাওয়া যায়। চিরকুটে লেখা রয়েছে, ‘আমার নাম সজল, আমি কারিমা ধর্ষণের ধর্ষক, তাই আমার এই পরিণতি।’

কাঁঠালিয়া থানা পুলিশের এসআই আলী হোসেন বলেন, ওই যুবকের মরদেহ উদ্ধারের পর মর্গে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে হত্যার পর গলায় চিরকুট ঝোলানো হয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মোজাম্মেল হোসেন রেজা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যাবে।

(তথ্যসূত্র : জাগো নিউজ)
 

এই বিভাগের আরো খবর