রোববার   ১৭ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৩ ১৪২৬   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

রেলওয়ে জায়গা মাথায় করে নিয়ে যাবে, তা হবেনা: মেয়র আইভী

প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০১৯  

স্টাফ রিপোর্টার (যুগের চিন্তা ২৪) : শেখ রাসেল পার্কের জায়গা জায়গা মাথায় করে রেলওয়ে নিয়ে যাবে তা কিন্তু হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের (নাসিক) মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী। তিনি বলেন, এটি আমাদের পূর্ব পুরুষদের জায়গা। অধিগ্রহণে যাবে, বিক্রির জন্য না। টেন্ডার দিয়ে বিক্রি করে দিবে, পার্ক থাকবে না, উন্মুক্ত মঞ্চ করতে দিবে না, খেলার মাঠ থাকবে না, আমাদের বাচ্চারা খেলতে পারবে না, তা কিন্তু হবে না। 

 

বৃহস্পতিবার (২৪ অক্টোবর ) আলী আহম্মদ চুনকা নগর পাঠাগার ও মিলনায়তনে চলচ্চিত্র নির্মাতা মোরশেদুল ইসলামের ১১টি চলচ্চিত্র প্রদর্শন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির তিনি বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

 

মেয়র আইভী আরো বলেন, শেখ রাসেল পার্ক নিয়ে গতকাল অনেক কিছু হয়েছে। রেলের জায়গা রেল নিয়ে যাবে না কি ! জনপ্রতিনিধি হয়ে গোপনে জায়গা বিক্রি করে দিবো! আবার মায়া কান্না করব তা হবে না। নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের পেছনের জায়গা কারা বিক্রি করে দিছে নারায়ণগঞ্জবাসীর জানা উচিত। হাজীগঞ্জে আমাদের দুর্গ দখল হয়ে আছে। পাট মন্ত্রাণালয় লিজ নিয়েছে। সেটা সিটি করপোরেশনের অংশগ্রহণে উচ্ছেদ হচ্ছে। আমি চাই নারায়ণগঞ্জবাসী আমার পাশে দাঁড়াক। অনেকের প্রশ্ন থাকতে পারে মেয়র কেন এই জটিল কাজগুলো করছে।এই জটিল কাজগুলো নারায়ণগঞ্জে ৪০-৫০ বছরে মধ্যে কেউ এগুলো করে নাই। প্রতেকেই সফল অবস্থানে থেকে টাকার পাহাড় করেছেন। এক বাড়ি থেকে ১০ বাড়ি করেছেন। কিন্তু সেসব আমার দেখার বিষয় না। কিন্তু জনগণের সম্পত্তি রক্ষার দায়িত্ব পেয়েছি। ভোট দিয়েছেন আমি এই দায়িত্ব পালন করে যেতে চাই।  

 

মেয়র আইভী বলেন, শেখ রাসেল পার্ক আমি করে দিয়েছি জনগণের জন্য, পুকুর আমি রক্ষা করেছি এই শহরের মানুষের জন্য। খাল-বিল রক্ষা করা আমাদের নৈতিক  দায়িত্ব। পার্ক রক্ষা করা এখন আপনাদের দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। আমাদের জননেত্রী শেখহাসিনা এদেশকে মুক্তি যুদ্ধের চেতনায় গড়তে চাচ্ছে। আমরা বড়দের পথ দেখানো পথে যেতে চাই। আমাদের সন্তানের সেই ব্যবস্থা গড়ে তুলতে হবে। নারায়ণগঞ্জবাসীকে রুখে দাঁড়াতে হবে।

 

সংস্কৃতিচর্চার উপর জোর দেয়ার গুরুত্বারোপ করে বলেন,  এই ধরণের প্রোগ্রাম যত বেশি হবে আমাদের সন্তানেরা মাদকাসক্তি থেকে তত বেশি দূরে থাকতে পারবে। সংস্কৃতি আমাদের একমাত্র মেডিসিন। সব কিছুর মধ্যেই লোভ, মাদকাশক্তি বিরাজ করছে। আমরা নৈতিকতা হারিয়ে ফেলছি। আমরা আদর্শ থেকে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছি। প্রতেকেই চাচ্ছি কত দ্রুত আমরা ধনী হবো।  আমরা কয়েকটি উন্মুক্ত মঞ্চের ব্যবস্থা করেছি। শেখ রাসেল পার্কে উন্মুক্ত মঞ্চ আছে, হাজীগঞ্জ, সোনাকান্দা কেল্লায় উন্মুক্ত মঞ্চ আছে। সিরাজ উদ দৌলা ক্লাবে উন্মুক্ত মঞ্চ রয়েছে । এরকম আরো অনেক আছে।

 

বুধবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন নারায়ণগঞ্জে ডাবল রেললাইনের কাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফে রাসেল পার্ক সম্পর্কিত প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, সিটি করপোরেশনও সরকারের, রেলওয়েও সরকারের। শেখ রাসেল পার্কের সম্পত্তির মালিক রেলওয়ে। রেলওয়ের জায়গা অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের প্রয়োজন হয় তাহলে যে সকল নিয়ম-নীতি রয়েছে সেই সকল কার্যক্রম মেনেই নিতে হবে। রেলওয়ের জায়গা রেলওয়ের কাছে রাখার জন্য যে ব্যবস্থা করা দরকার আমরা করবো। কিন্তু গায়ের জোরে কিছু করা যাবেনা।

 

তিনি আরো বলেন, আমরা উন্নয়ন চাই। আর এ উন্নয়নের লক্ষ্যেই আমরা রেলওয়ের জায়গার ওপর অবৈধভাবে গড়ে ওঠা সকল স্থাপনা উচ্ছেদ করবো। পরবর্তীতে আমরা সময় দিয়ে রেলওয়ের উন্নয়ন প্রকল্প শেষে যে সকল জায়গা অতিরিক্ত থাকবে তা যথাযথ ব্যস্থাপনার মধ্যে দিয়ে লিজ দিয়ে দিব। মন্ত্রী শেখ রাসেল পার্ক পরিদর্শনের সময় রেলওয়ের জমিতে পার্কটি নির্মাণাধীন বিধায় পার্কের কার্যক্রম বন্ধের নির্দেশনা দেন। এসময় ২১ জন কর্মীকে আটক করা হয়। পরে ১৯ জনকে ছেড়ে দিয়ে ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটকে রাখা হয়। 

এই বিভাগের আরো খবর