বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৮ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

রাত হলেই কুকুর যে কারণে বেশি ডাকে

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : মাঝরাতে আচমকা কুকুরের চিৎকারে ভেঙে যায় ঘুম! মনে হয় কুকুর যেন কাঁদছে। কুকুরের ডাক শুনে শিশুরা কেঁদে ওঠে। ভয় পেয়ে যাই আমরাও। জানেন কি মাঝরাতে কুকুর কেন কাঁদে? কারণ জানলে চমকে যাবেন আপনিও। চলুন জেনে নিন কারণগুলো-


# অনেকে মনে করেন মাুুষের মনোযোগ কেড়ে নেয়ার জন্যই রাতে কুকুর কেঁদে ওঠে। সমীক্ষায় দেখা গেছে, নতুন এলাকায় এলে কুকুরের মন খারাপ থাকে। পুরনো এলাকায় প্রতি একটা ভালবাসা থেকে যায়। সেই দুঃখ থেকেই রাতে কুকুর কেঁদে ওঠে। একটা হতাশা কাজ করে কুকুরের মধ্যে। অনেক সময় মানুষের পরিবার থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলেও কুকুর মাঝরাতে কেঁদে ওঠে।

 

# গুরুজনদের কাছ থেকে এটা শুনে অভ্যস্ত যে, কুকুরের চিৎকার কারও মৃত্যু আসন্ন। এ তো গেল ধারণা বা সংস্কার। এ ব্যাপারে জ্যোতিষীরা কী বলেন? তাদের মতে, কুকুর তখনই কাঁদে যখন আশপাশে কোনো অশরীরী আত্মা ঘুরে বেড়ায়। যা সাধারণ মানুষের পক্ষে দেখা সম্ভব নয়, সেটার উপস্থিতি টের পায় কুকুররা। তাই তাদের কাছেপিঠে আত্মা ঘুরে বেড়ালেই কুকুর নাকি কাঁদতে শুরু করে। আর কুকুর কাঁদলেই লোকজন তখন তাদের তাড়ানোর চেষ্টা করে।

 

# কুকুরও ভয় পায়। বয়সের সঙ্গে তা বাড়তে থাকে। তাই মাঝরাতে অনেক সময় এই কারণে কুকুর কেঁদে ওঠে। তাছাড়া সঙ্গীর অভাবও কুকুরের কান্নার একটা কারণ।
# বিজ্ঞান বলছে রাতে কুকুর কাঁদে না। এটা ওদের ডাক। রাতে এভাবে আওয়াজ করে দূরে থাকা তার সঙ্গীদের কাছে কোনো বার্তা পৌঁছানোর চেষ্টা করে। এভাবে আওয়াজ করে তার অবস্থানটা সঙ্গীদের জানায়। কারণ কুকুর একা থাকতে পছন্দ করে না।

 

# কুকুরের চোট-আঘাত লাগতে পারে। ব্যথা হতে পারে। শরীরে কোনো কষ্ট হতে পারে। সেই পরিস্থিতিকে জানান দিতেই ওভাবে আওয়াজ করে সঙ্গীদের ডাকে। তাছাড়া অন্য এলাকা থেকে অচেনা কুকুর চলে এলে বাকি কুকুরদের সজাগ করে দেয়ার জন্যও কুকুর ডাকে। কিংবা অস্বাভাবিক কিছু দেখলে কুকুর ডাকতে শুরু করে। এটাকে আমরা কান্না বলে ভাবি।

এই বিভাগের আরো খবর