বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ৩০ ১৪২৬   ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

রাখাইনে রিসোর্ট তৈরির প্রস্তাব চীন ও সিঙ্গাপুরের

প্রকাশিত: ৩ আগস্ট ২০১৯  

ডেস্ক রিপোর্ট (যুগের চিন্তা ২৪) : মিয়ানমারের পশ্চিমাঞ্চলীয় সহিংসতাপূর্ণ রাজ্য রাখাইনে ১৬০ কোটি ডলারের উন্নয়ন প্রকল্পের যৌথপ্রস্তাব করেছে চীন ও সিঙ্গাপুরের দু’টি প্রতিষ্ঠান। এর অংশ হিসেবে চীনের সাংহাই ব্রাইট ইন্ডাস্ট্রি লিমিটেড ও সিঙ্গাপুরের হুয়াচেন ইন্টারন্যাশনাল রিসোর্স লিমিটেড- এর প্রতিনিধিরা রাখাইনের রাজধানী শিতে সফরও করেছেন। 


গেল ১২ জুলাই রাজ্যটির ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্র্যাসি (এনএলডি) নিযুক্ত মুখ্যমন্ত্রী ইউ নিই পিউ’র সঙ্গে সাক্ষাৎ করে প্রতিনিধি দল দু’টি। তবে রাজ্য সরকার এ প্রকল্পের বিস্তারিত কোনো তথ্য দেয়নি।


মিয়ানমার ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ইরাবতী জানিয়েছে, হুয়াচেন ইন্টারন্যাশনাল রিসোর্স লিমিটেডের প্রতিষ্ঠাতা চুয়া হাউ পোর বিখ্যাত পেনিনসুলা হোটেল গ্রুপের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শেয়ারহোল্ডার ছিলেন।


যারা একটি বৈশ্বিক হোটেল চেইন পরিচালনা করে এবং বার্ষিক লাখ লাখ মিলিয়ন ডলার উপার্জন করে। চীনের সংবাদমাধ্যম সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট এক নিবন্ধে দাবি করেছে, চুয়া হাউ পোরের চীনের সঙ্গে যোগাযোগ রয়েছে এবং তার সঙ্গে চীনা প্রেসিডেন্টের আস্থাভাজন লি জানশুর গভীর সম্পর্ক রয়েছে।


২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনের কয়েকটি নিরাপত্তা চৌকিতে হামলার পর পরিকল্পিত ও কাঠামোগত সহিংসতা জোরালো করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। হত্যা-ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধারার সহিংসতা ও নিপীড়ন থেকে বাঁচতে নতুন করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ৭ লাখ ৪০ হাজারেরও বেশি মানুষ। 


জাতিগত নিধনযজ্ঞের ভয়াবহতায় রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর বড় অংশটি বাংলাদেশে পালিয়ে এলেও জাতিসংঘের হিসাবে চার লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা এখনও মিয়ানমারে রয়ে গেছে। জাতিসংঘ দেশটিতে রোহিঙ্গাবিরোধী সামরিক অভিযানকে ‘জাতিগত নিধনযজ্ঞ’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

এই বিভাগের আরো খবর